ঢাকা, শনিবার 16 September 2017, ০১ আশ্বিন ১৪২8, ২৪ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাজৈরের টেকেরহাটে রোহিঙ্গা মুসলিম হত্যা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল

রাজৈর (মাদারীপুর) সংবাদদাতা : মায়ানমারের জাতিগত সহিংসতায় রহিঙ্গা মুসলিম হত্যা বন্ধের দাবিতে মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দরের ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের সামনে গতকাল শুক্রবার বিকালে প্রায় ৩ রাস্তার দুই পাশে মানবন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্থানীয় তাওহীদি মুসলিম জনতা ও সর্বস্তরের জনগণ। এতে হাজার হাজার মানুষ অংশগ্রহণ করে।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘মিয়ানমারের মুসলমান নর-নারী, ও শিশুদের নিষ্ঠুরভাবে গণহত্যা চালানো হচ্ছে। গর” ছাগলের মত তাদেরকে জবাই করে শরীর থেকে চামড়া তুলে নেওয়া হচ্ছে। এই ঘটনা ঘটার পরেও বিশ্বমানবাধিকার সংস্থা কিভাবে নিশ্চুপ থাকে! তারা আজ কেন এই বর্বরতাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন হচ্ছে না! বিশ্ব সংগঠন জাতিসংঘ মিয়ানমারের মুসলমানদের গণহত্যার প্রতিবাদে মুখ ঘুড়িয়ে নিচ্ছে। এর কারন একটাই মুসলমানদের উপর নিপীড়ন নির্যাতন হলে তারা খুশি। তা না হলে প্রতিদিন গণহারে সাধারন মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে। তার পরেও এর কোন প্রতিবাদ নেই।’ একটি শরীরের কোন এক স্থানে আঘাত পেলে সারা শরিরে কষ্ট অনুভত হয় আর আমরা তেমনি মুসলমান একটি শরির। তারা আরও বলেন ওয়াং সান সুচিকে শান্তিতে নোবেল দেয়া হয়েছে সেটা ফিরিয়ে নেয়া হক। তাকে প্রয়োজনে অশান্তিতে নোবেল দেয়া হক। বাংলাদেশের প্রধানদের উদ্দেশ্য করে বলেন, বিশ্বকে ভালভাবে অবহিত না করলে মিয়ানমারের হিংস্রতার থাবা থেকে মুসলমানদের গণহত্যা কোন মতেই বন্ধ করা সম্ভব হবে না।’ প্রয়োজনে আমরা রহিঙ্গা মুসলিমদের সাহয্যে করতে প্রস্তুত আছি। এসময় সমাবেশে মায়ানমারে মুসলিম হত্যা বন্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানান অংশগ্রহণকারীরা। চরপ্রসন্নদী মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মোস্তফার সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, টেকেরহাট মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা সুলতান মাহমুদ, পৌর মেয়র শামিম নেওয়াজ,জেলা পরিষদ সদস্য ইকবাল হোসেন,এড.জালালুর রহমান প্রমুখ। উপজেলার বিভিন্ন মাদরাসার আলেম-উলামাসহ সর্বস্তরের মানুষ এতে অংশগ্রহণ করে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ