ঢাকা, রোববার 17 September 2017, ০২ আশ্বিন ১৪২8, ২৫ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আশ্বিনের প্রথম দিনে মৃদু তাপপ্রবাহের দাপট

 

স্টাফ রিপোর্টার : বঙ্গাব্দের পঞ্চম মাস আশ্বিনের প্রথম দিনটিতে রাজধানীসহ সারা দেশে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যায়। গতকাল শনিবার পহেলা আশ্বিন দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ময়মনসিংহে ৩৬ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ঢাকায় দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সে.। তাপপ্রবাহে নাগরিকদের নাভিশ্বাস উঠে যায়। এতদিন ভুগিয়েছে বৃষ্টি-যানজট আর গতকাল সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ছিল লোডশেডিং ও গরমের যন্ত্রণা। 

আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল সকাল ৯টায় ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩ দশমিক ৪ ডিগ্রি সে. থাকলেও দুপুর বারোটায় তা ৩৬ ডিগ্রিতে উন্নীত হয়। অন্যদিকে এদিন সারাদেশের মধ্যে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ময়মনসিংহে, ৩৬ দশমিক ৭ ডিগ্রি সে.। সকাল নয়টায় যা ছিল ৩৪ দশমিক ৭ ডিগ্রি সে.। এছাড়া এদিন টাঙ্গাইলে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি, নিকলিতে ৩৬ ডিগ্রি, রাঙ্গামাটি ৩৬, চাঁদপুর ৩৬ দশমিক ২, সিলেট ৩৬ দশমিক ৬, শ্রীমঙ্গল ৩৬, ঈশ্বরদী ৩৬ দশমিক ২, বগুড়া ৩৬ দশমিক ২, রংপুর ৩৬, দিনাজপুর ৩৬ দশমিক ১, সৈয়দপুর ৩৬, খুলনা ৩৬, সাতক্ষীরা ৩৬ দশমিক ২, যশোর ৩৬ দশমিক ৪, চুয়াডাঙ্গা ৩৬ দশমিক ৬, বরিশাল ৩৬ দশমিক ২ ও ভোলার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ দশমিক ৪ ডিগ্রি সে.। গতকাল সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী চব্বিশ ঘন্টায় রাঙামাটিতে ২ মিলিমিটার ছাড়া দেশে আর কোথাও বৃষ্টিপাত হয়নি। 

আশ্বিনে গা শিন শিন করার কথা থাকলেও গতকাল ছিল এর উল্টো অবস্থা। বৃষ্টিহীন দিনে লোডশেডিং থাকায় গরমের তীব্র দহন আরো ভুগিয়েছে রাজধানীবাসী সহ দেশের মানুষকে। সাপ্তাহিক ছুটির দিন থাকায় অনেকেই ঘরের মধ্যে দিন কাটিয়েছে। যারাই ঘরের বাইরে এসেছে তারাই বলেছে, এ যেন আগুনের হল্কা। শরীর পুড়ে যাওয়ার মতো অবস্থা তাপপ্রবাহের দাপটে।                                                                                                       এদিকে আজ রোববার সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, মওসুমী বায়ুর অক্ষ পাঞ্জাব, হরিয়ানা, জয়পুর, মধ্যপ্রদেশ, উত্তর প্রদেশ, বিহার, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর কম সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্যত্র দূর্বল অবস্থায় রয়েছে। এর প্রভাবে খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং  ময়মনসিংহ ও ঢাকা বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের দু’এক জায়গায় অ¯’ায়ী দম্কা হাওয়াসহ হাল্কা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি বর্ষণ হতে পারে। সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবতির্ত থাকতে পারে।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ