ঢাকা, সোমবার 18 September 2017, ০৩ আশ্বিন ১৪২8, ২৬ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

কানাডায় ওষুধ রফতানি শুরু করেছে বেক্সিমকো ফার্মা

প্রথম বাংলাদেশী কোম্পানি হিসেবে কানাডায় ওষুধ রফতানি শুরু করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় ওষুধ রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। চোখের এলার্জির ওষুধ ওলোপটাডিন রফতানি শুরুর মাধ্যমে কানাডার বাজারে প্রবেশ করলো বেক্সিমকো। এর আগে গত অর্থ বছরে ওলোপটাডিন (০.১% সলিউশন) হেলথ কানাডা’র অনুমোদন লাভ করে। 

ইন্টারকন্টিনেন্টাল মার্কেটিং সার্ভিসেস (আইএমএস) এর তথ্য অনুসারে কানাডায় ওলোপটাডিন এর বাজার ১৪ মিলিয়ন ইউএস ডলারের। রফতানির প্রথম চালানটি গত শনিবার হস্তান্তর করা হয় এবং কানাডায় এই চোখের ড্রপটি বাজারজাত করবে কোম্পানির কানাডীয় পার্টনার। আশা করা হচ্ছে হেলথ কানাডা কর্তৃক ২০১৮ সালের প্রথম প্রান্তিকে দ্বিতীয় পণ্য বাজারজাতকরণের অনুমোদন পাওয়া যাবে। এছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি ওষুধ কানাডায় রফতানির জন্য বেক্সিমকোর আরঅ্যান্ডডি পাইপলাইনে রয়েছে।

কানাডায় ওষুধ রফতানি শুরু প্রসংগে বেক্সিমকো ফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান এমপি বলেন, “যুক্তরাষ্ট্রের পর কানাডার বাজারে প্রবেশ উত্তর আমেরিকায় আমাদের অবস্থানকে আরও শক্তিশালী করবে। বাংলাদেশে তৈরি কোন ওষুধ, বিশেষত অপথালমিক পণ্য, প্রথম কানাডায় রফতানি হচ্ছে, এটা আমাদের দেশের জন্য গর্বের। উত্তর আমেরিকায় অপথালমিক ওষুধের রফতানি স্পেশালাইজড জেনেরিক প্রোডাক্ট উৎপাদনে আমাদের সক্ষমতারই বহিঃপ্রকাশ। আন্তর্জাতিক বাজারে, বিশেষত উন্নত দেশগুলোতে শক্ত অবস্থান তৈরিতে আমাদের এই প্রয়াস অব্যহত থাকবে।  বেক্সিমকো ফার্মার অপথালমিক ইউনিটটি বাংলাদেশের একমাত্র ফ্যাসিলিটি যা ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া এবং কানাডার অনুমোদন লাভ করেছে। বর্তমানে বিশ্বের ৫০টিরও বেশি দেশে বেক্সিমকো ফার্মার ওষুধ রফতানি হচ্ছে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ