ঢাকা, সোমবার 18 September 2017, ০৩ আশ্বিন ১৪২8, ২৬ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

কামরাঙ্গীর চরে খেলাফত আন্দোলনের বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার: মজলুম রোহিঙ্গা মুসলমানদের গণহত্যা ও নিপীড়ন-নির্যাতনের প্রতিবাদে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ আজ সোমবার মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচী পালন করবে। আজ বেলা ১১ টায় বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটে জমায়েত শেষে মিয়ানমার দূতাবাস অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিল রওয়ানা করবে।
মিয়ানামার দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচী উপলক্ষ্যে গতকাল রোববার কামরাঙ্গীর চরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন। বিক্ষোভ মিছিল শেষে সমাবেশে দলটির আমীর ও হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ হাফেজ্জী মিয়ানমার  রোহিঙ্গা মুসলমানদের গণহত্যা ও জুলুম-নির্যাতন এবং মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের অপরাধে মিয়ানমার সরকারের সাথে বাংলাদেশসহ সকল মুসলিম রাষ্ট্রের কূটনৈতিক, অর্থনৈতিকসহ সকল প্রকার সম্পর্ক ছিন্ন করার আহবান জানিয়েছেন। মিয়ানমার মুসলিম জাতির শত্রু। বাংলাদেশ মুসলিম প্রধান দেশ হিসেবে মুসলমানদের চির শত্রু মিয়ানমার দূতাবাস বাংলাদেশে থাকতে পারেনা। তিনি অবিলম্বে বাংলাদেশ থেকে মিয়ানমারের দূতাবাস বন্ধ এবং রাষ্ট্রদূুতকে বহিষ্কার করার আহবান জানান।
 হেফাজত ইসলাম কামরাঙ্গীরচর জোনের সভাপতি ও খেলাফত আন্দোলনের মহাসচিব মাওলানা হাবীবুল্লাহ মিয়াজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন -হেফাজত ইসলাম ঢাকা মহানগর যুগ্ন সম্পাদক মাওলানা মুজীবুর রহমান হামিদী, মুফতি ফখরুল ইসলাম, মাওলানা সুলতান মহিউদ্দীন, মাওলানা হাফেজ মুহিব্বুল্লাহ ফরাজী ও মাওলানা কামাল হোসাইন প্রমুখ।
মাওলানা হাবীবুল্লাহ মিয়াজী বলেন,  রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে এবং তাদের দেশান্তর করে মিয়ানমার সরকার জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সকল আইন ও মানবাধিকার লঙ্গন করছে। এ গণহত্যার নায়ক সুচির বিচার আর্ন্তজাতিক আদালতে করতে হবে। রোহিঙ্গা মুসলমানদের রক্ষায় সসস্ত্র জিহাদের বিকল্প নেই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ