ঢাকা, মঙ্গলবার 19 September 2017, ০৪ আশ্বিন ১৪২8, ২৭ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

দর্শনায় ২ হাজার রাধাচূড়া ও কৃষ্ণচূড়া রোপণ

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা: চুয়াডাঙ্গার ঐতিহ্যবাহী শিল্পনগরী দর্শনাকে নান্দনিক করতে “নান্দনিক দর্শনা”র আয়োজনে ও লায়ন্স্ ক্লাব অব ঢাকা রোজ গার্ডেনের সহায়তাই ২ হাজার রাধাচুড়া ও কৃষ্ণচূড়াগাছ রোপণ করা হয়েছে।
শুক্রবার দর্শনা সরকারী কলেজ মাঠের শহীদ মিনারে এ কাজের উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগার টগর। নান্দনিক দর্শনার উদ্যোগে লায়ন্স ক্লাব অব ঢাকা রোজ গার্ডেনের সহযোগিতায় দর্শনার দুটি এলাকা কলেজ চত্বর ও মাথাভাঙ্গা নদীর দুইপাড়ে দুই হাজার গ্রীস্মের ফুল রাধাচুড়া ও কৃষ্ণচুড়া গাছ রোপণের কর্মসুচী গ্রহণ করে। সেই লক্ষ্যে দর্শনা সরকারী কলেজ শহীদ মিনারে কর্মসূচির আয়োজন করেন দর্শনা সামাজিক সংগঠন নান্দনিক দর্শনা। গাছ লাগানোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এমপি টগর নান্দনিক দর্শনার প্রসংশা করে বলেন, নান্দনিক দর্শনার উদ্যোগে দর্শনা শহরের বিভিন্ন স্থানে এবং সড়কের দুধারে ও মাথাভাঙ্গা নদীর দুপাশে কৃষ্ণচূড়া, রাধাচূড়া দর্শনার শোভা বর্ধনের রূপ বৈচিত্র্যকে বেশি বেশি নান্দনিক করে তুলবে। গ্রীস্মের ফুল রাঁধাচূড়া, কৃষ্ণচূড়াও একদিন বিশ্ব মাতাবে।
নান্দনিক দর্শনার এ উদ্যোগকে এবং গাছগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে সকলকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। দর্শনা কলেজ ও পৌরসভা মাঠের চারদিকে প্রায় ৪৫টি কৃষ্ণচূড়া ও রাধাচূড়ার গাছ লাগানো হয়। নান্দনিক দর্শনার সদস্য ইমতিয়াজ হোসেন ও আব্দুস সামাদ আজাদ বিপু বলেন ২ হাজার গাছ লাগিয়ে আগামী ১০ বছর পর দর্শনার রূপ ও বৈচিত্র্যের মাধ্যমে এক অন্য রকম দর্শনা শহরে সর্বত্র শোভা পাবে বলে আশা করছেন। গাছ লাগানো অনুষ্ঠানে দর্শনার বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থেকে নিজে হাতে সবাই কৃষ্ণচূড়া, রাধাচূড়া, সোনালু আর জারুল লাগান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ