ঢাকা, সোমবার 25 September 2017, ১০ আশ্বিন ১৪২8, ০৪ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নির্বিচারে দেশী জাতের ছোট মাছ নিধন

রাণীনগর (নওগাঁ) সংবাদদাতা: নওগাঁর রাণীনগরে বন্যার পানি কমতে থাকায় নদী-নালা খাল-বিলে এক শ্রেণীর মৎস্যজীবিরা বেশি লাভের আশায় অবাধে নিধন করছে দেশী জাতের ছোট মাছ। ডিম ফুটার পর থেকেই খোলা পানিতে তাড়াতাড়ি বেরে ওঠা নানান জাতের দেশীয় মাছ গুলো প্রতি রাতে নিধন করে বাজারে বিক্রয় করলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরদারির অভাবে এই মাছগুলো ধরার যেন প্রতিযোগিতা চলছে। প্রতিদিন যে পরিমাণ মাছ ধরা হচ্ছে তাতে শুষ্ক মৌসুমে দেশী জাতের মাছ গুলোর অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে যাবে বলে এমনটায় মনে করছেন স্থানীয়রা। উন্মুক্ত জলাশয়ে অবাধে মাছ মারার কারণে স্থানীয় চাহিদা মিটাতে চাষি পর্যায়ের পুকুরে চাষকৃত মাছের উপর নির্ভর করতে হয়। এক শ্রেণীর মৎস্যজীবী সুতি জাল, ভাদাই জাল, খড়া জাল দিয়ে ডিম ওয়ালা মা ও দেশী জাতের পোনা মাছ নিধন করছে। বেশী ভাগ মৎস্যজীবি হতদরিদ্র হওয়ার কারণে ভরা বর্ষা মৌসুমে হাতে তেমন কোন কাজ না থাকাই দু’মোঠো ডাল ভাত পাওয়ার আশাই যেনে বুঝে এই সব পোনা মাছ গুলো ধরতে বাধ্য হচ্ছে বলে জানান স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ীরা। এই সব অপতৎপরতা বন্ধে মৎস্য অফিসের কর্তা ব্যক্তিদের ও উপজেলা প্রশাসনের যথেষ্ট নজরদারীর অভাব রয়েছে এমনটায় অভিযোগ উঠছে।
উপজেলার আতাইকুলা, মিরাট, হরিশপুর ও ৩নং স্লুইসগেট এলাকার বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বন্যার পানিতে নদী-নালা খাল-বিল ভরে গেলে উৎসক কিছু মানুষেরা ছোট ছোট মাছ শিকারে মেতে উঠে। নদী থেকে খাল-বিলে পানি প্রবেশের পথে কিংবা উম্মুক্ত জলাশয়ে সুতি ও ভাদাই জাল দিয়ে রাত থেকে ভোর পর্যন্ত পুঁটি, টেংড়া গচি, চিংড়ি, শাটি, মলা, ঢেলা, চান্দা, বোয়াল পাতাশি, রাইকর স্বরপুঁটি, কই, শিং, মাগুড়, বোয়াল সহ নানা জাতের ছোট মাছ ও ডিম ওয়ালা মা মাছ ধরা হচ্ছে। গত কয়েক দিন ধরে রোদের তীব্রতা বেশি হওয়ার কারণে এই জাতের মাছগুলো বেশি ধরা পরাই উপজেলার কুজাইল বাজার সহ পার্শ্ববর্তী উপজেলা আত্রাইয়ে ট্রাক যোগে নিয়ে গিয়ে বিক্রয় করা হয়। কিন্তু আইন-শৃংখলা বাহিনী কিংবা মৎস্য অফিসের কর্তা ব্যক্তিদের কোন অভিযান চোখে পড়ে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ