ঢাকা, সোমবার 25 September 2017, ১০ আশ্বিন ১৪২8, ০৪ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

খুলনায় শেখ আবু নাসের হাসপাতালের ওষুধ চুরির মামলায় তদন্তে নেমেছে দুদক

খুলনা অফিস: খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের ওষুধ চুরির ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারার অভিযোগ তদন্তে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় খুলনার উপ-সহকারী পরিচালক মোশারফ হোসেন মামলাটি তদন্তে দায়িত্ব পেয়েছেন। এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত তিনজন বর্তমানে খুলনা জেলা কারাগারে আছেন।
আসামীরা হলো-শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের ফার্মাসিস্ট বটিয়াঘাটা উপজেলার হুলা গ্রামের মৃত গোপী রঞ্জন রায়ের ছেলে দেবপ্রসাদ রায় (৪৫), দেবপ্রসাদ রায়ের শ্যালক কয়রা উপজেলার চান্নির চক গ্রামের হিরনময় শানার ছেলে দিপংকর শানা (৩৫) ও হেরাজ মার্কেটের ইমা ড্রাগস-এর মালিক নগরীর পশ্চিম বানিয়া খামারের বাসিন্দা শেখ আনিস উদ্দিনের ছেলে শেখ রকিবুল আবেদীন (৩২)।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী থেকে জানা গেছে, গত ২১ আগস্ট সকাল ৮টার দিকে হাসপাতাল থেকে সরকারি বিক্রি নিষিদ্ধ ওষুধ চুরি করে মুজগুন্নীর রাস্তা দিয়ে হেরাজ মার্কেটের বিভিন্ন ওষুধের দোকানে বিক্রি করতে নিয়ে যাওয়ার সময় ফার্মাসিস্ট দেবপ্রসাদ ও তার শ্যালক দিপঙ্করকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছে থাকা ব্যাগে থেকে ২০ হাজার পিস ট্যাবলেট CIPROFLOXACIN-500 এমজি  ও ১৭ হাজার পিস  ট্যাবলেট ESORAL-20 এমজি জব্দ করা হয়। পরে তাদের স্বীকারোক্তিতে ইমা ড্রাগস-এর মালিক রকিবুল আবেদীনকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশকে ঘুষ দেয়ার চেষ্টাকালে তাদের কাছ থেকে সাড়ে ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকাও জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় এএসআই টমাস মন্ডল বাদি হয়ে গ্রেফতারকৃত তিনজনের বিরুদ্ধে খালিশপুর থানায় ১৬২, ৪০৬, ৪০৯, ১০৯ পেনাল কোর্ড তৎসহ ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় মামলা দায়ের করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ