ঢাকা, সোমবার 25 September 2017, ১০ আশ্বিন ১৪২8, ০৪ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়ানোর উপর গুরুত্বারোপ

আইসিসি বাংলাদেশ এর সভাপতি মাহবুবুর রহমানের নেতৃত্বে আইসিসি বাংলাদেশ এর একটি প্রতিনিধি দল সিডনিতে অষ্ট্রেড কর্মকর্তাদের সাথে এক সভায় মিলিত হন। সভায় দু’দেশের মধ্যে বেসরকারি খাতের বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ বাড়ানোর উপর আলোচনা হয়। তৈরী পোশাক, ঔষধ শিল্প এবং চামড়া পণ্য রপ্তানিসহ বিভিন্ন বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সভায় আলোচনা হয়।
আইসিসি বাংলাদেশ এর সভাপতি এবং ইষ্টল্যান্ড ইন্সুরেন্স কোম্পানির চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান সভায় অবহিত করেন যে, বাংলাদেশ সরকার ১০০টি রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করতে যাচ্ছে এবং বেসরকারি খাতেরও রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল প্রতিষ্ঠার অনুমতি দিয়েছে। মাহবুবুর রহমান উল্লেখ করেন, দক্ষিন কোরিয়া ইতিমধ্যেই একটি রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করেছে। এছাড়া চায়না, ইন্ডিয়া ও জাপান কর্তৃক স্বতন্ত্র রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল প্রতিষ্ঠা হতে যাচ্ছে। সুতরাং অষ্ট্রেলিয়াও বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রদত্ত সুবিধা নিয়ে রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করতে পারে। এছাড়াও এনার্জিসহ অবকাঠামোখাতে ব্যাপক বিনিয়োগের সম্ভাবনা রয়েছে।
অষ্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার কাজী ইমতিয়াজ হোসেন বাংলাদেশে সরাসরি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সরকারের নীতিমালা সম্পর্কে অষ্ট্রেড কর্মকতৃাদের অবহিত করেন। তিনি উল্লেখ করেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগ-বান্ধব নীতিমালা রয়েছে ও শতভাগ মালিকানা এবং বিদেশী বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ নিজদেশে পাঠানোর সুযোগ রয়েছে। তিনি বলেন,বাংলাদেশে বিনিয়োগের সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে জানতে অষ্ট্রেলিয়ান বাণিজ্য প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ সফর করতে চাইলে বাংলাদেশ হাই কমিশন স্বাগত জানাবে।
অষ্ট্রেড এশিয়ার জেনারেল ম্যানেজার মিস লিউ বিং অষ্ট্রেডে সিডনি কার্যালয়ে আসার জন্য বাংলাদেশ হাই কমিমনার কাজী ইমতিয়াজ হোসেন এবং আইসিসি বাংলাদেশ সভাপতি মাহবুবুর রহমানকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
আইসিসি বাংলাদেশ এর প্রতিনিধি দল এর সদস্যরা তৈরী পোশাক শিল্পের জন্য অষ্ট্রেলিয়া থেকে আরও বেশী তুলা আমদানি করার ব্যাপরে আগ্রহ প্রকাশ করেন এবং অষ্ট্রেলিয়াতে তুলা চাষের উপর বিনিয়োগের ব্যাপারে আগ্রহ দেখান যা বাংলাদেশে রপ্তানি করা হবে।
মাহবুবুর রহমান অষ্ট্রেড ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদলকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান। সভায় উপস্থিত ছিলেন ঃ আইসিসি বাংলাদেশের সহ-সভাপতি রোকেয়া আফজাল রহমান; নির্বাহী বোর্ডের সদস্য ও হামীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ.কে. আজাদ; নির্বাহী বোর্ডের সদস্য ও প্লাম্মী ফ্যশনস এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ ফজলুল হক; মাইডাস ও শাশা ডেনিমস্ এর চেয়ারম্যান মিসেস পারভীন মাহমুদ; আইসিসি বাংলাদেশের সেক্রেটারি জেনারেল আতাউর রহমান ও বাংলাদেশ দুতাবাস- অষ্ট্রেলিয়ার প্রথম সচিব ফরিদা ইয়াসমিন। অষ্ট্রেড এর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সহকারী পরিচালক (বাংলাদেশ, নেপাল এবং ভুটান শাখা পররাষ্ট্র ও ট্রেড বিভাগ) কবিতা কাশিনাথন, অষ্ট্রেড  ট্রেড উপদেষ্টা  জোয়েল মউহা; অষ্ট্রেড  ট্রেড উপদেষ্টা স্যম গুয়েডওয়ার্ড; সিনিয়র  ট্রেড উপদেষ্টা আবদুল একরাম এবং নির্বাহী কর্মকর্তা জেসিকা হেরিসন।  প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ