ঢাকা, বুধবার 27 September 2017, ১২ আশ্বিন ১৪২8, ০৬ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে লাল কার্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার : ফুটবলের মাঠে খেলোয়াড়দের শাস্তির জন্য লালকার্ডের ব্যবস্থা  থাকলেও, ক্রিকেট খেলায়ও লাল কার্ডের প্রচলন হতে যাচ্ছে। আগামীকাল থেকে নতুন নিয়ম কার্যকর হবে বলে গতকাল ঘোষণা দিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। অর্থাৎ টাইগার ও প্রোটিয়া সিরিজ দিয়েই শুরু হবে ক্রিকেটে লাল কার্ডের প্রচলন।
অবশ্য সময়ের হিসেবে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ দিয়ে লাল কার্ডের প্রচলন হতে যাচ্ছে। কেন না, একইদিন এই দুই দল টেস্ট খেলতে নামবে। বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার টেস্ট শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বেলা দুইটায়। অন্যদিকে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের খেলা শুরু হবে বেলা ১২টায়। আইসিসি বেশ কয়েকটি নতুন নিয়মের প্রচলন ঘটাতে যাচ্ছে বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা এবং পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা সিরিজ দিয়ে। লাল কার্ডের পাশাপাশি অপর দুটি গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন হলো- ব্যাটের আকার সীমিত করা এবং ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমে পরিবর্তন। ব্যাটে-বলে ভারসাম্য আনার লক্ষ্যে ব্যাটের আকারেও পরিবর্তন এনেছে আইসিসি। নতুন নিয়ম অনুযায়ী ব্যাটের প্রস্থ ১০৮, পুরু ৬৭ ও কিনারা হবে সর্বোচ্চ ৪০ মিলিমিটার।
ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমেও পরিবর্তন এসেছে। যেটি আসন্ন দুটি সিরিজ থেকেই কার্যকর হবে। আম্পায়ার্স কলের বিপরীতে রিভিউ ডেকে কোন দল হেরে গেলে তাদের নির্ধারিত রিভিউটি নষ্ট হবে না। তবে নতুন নিয়ম অনুযায়ী, টেস্টে কোনো দল দুটির বেশি 'অসফল' রিভিউ নিতে পারবে না।
আগের নিয়ম অনুযায়ী, ৮০ ওভারের পর নতুন করে রিভিউ নিতে পারতো দলগুলো। কিন্তু এখন এক ইনিংসে সর্বসাকুল্যে দুটি অসফল রিভিউ নিতে পারবে কোনো দল। এদিকে টি-টোয়েন্টিতেও রিভিউ নিতে পারবে দলগুলো। এছাড়া মাঠের আম্পায়ারের সঙ্গে বাজে আচরণ, সহিংসতা কিংবা হুমকি দিলে নির্দিষ্ট ওই খেলোয়াড়কে সাময়িক সময়ের জন্য কিংবা চূড়ান্তভাবে লালকার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দিতে পারবেন আম্পায়ার।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ