ঢাকা, শুক্রবার 29 September 2017, ১৪ আশ্বিন ১৪২8, ০৮ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

‘২০২৫ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় হুমকি হবে চীন’

জেনারেল জোসেফ ডানফোর্ড

২৮ সেপ্টেম্বর, স্পুটনিক : রাশিয়াকে হটিয়ে ২০২৫ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য চীন সবচেয়ে বড় হুমকি হয়ে দেখা দেবে বলে মনে করেন মার্কিন জয়েন্ট চীফ অব স্টাফ কমিটির চেয়ারম্যান জেনারেল জোসেফ ডানফোর্ড। তাই তিনি বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে ‘তুলনমূলক সুবিধা’ ধরে রাখতে কংগ্রেসের কাছে সেনাবাহিনীর বরাদ্দ বাড়ানোর সুপারিশ করেছেন।
স্পুটনিক পত্রিকার এক খবরে বলা হয়, ২৬ সেপ্টেম্বর সিনেট আর্মড সার্ভিস কমিটিতে শুনানিকালে জেনারেল ডানফোর্ড যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা ও সেনাবাহিনী সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন। ডানফোর্ডের মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়টি বিবেচনার অংশ হিসেবে এই শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।
বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থ তুলে ধরতে দিয়ে ডানফোর্ড আফগানিস্তান ও উত্তর কোরিয়ার বিষয়েও কথা বলেন। এ সময় তিনি বলেন, ২০২৫ সালের মধ্যে সম্ভবত চীন হবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী।
মেরিন কোরের সাবেক কমান্ডার ও আফগানিস্তানে মার্কিন বাহিনীর নেতৃত্বদানকারী ডানফোর্ড বলেন, এই মুহূর্তে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য তিনটি বড় সামরিক হুমকি হলো রাশিয়া, চীন ও উত্তর কোরিয়া।
তিনি বলেন, আমরা যদি ২০২৫ সালের পরের দৃশ্যপট চিন্তা করি, জনসংখ্যাগত ও অর্থনৈতিক পরিস্থিতি বিচেনায় নেই, তাহলে চীন আমাদের দেশের জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি হিসেবে আবির্ভুত হবে।
এই মুহূর্তে চীন প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্র্রের ক্ষমতা প্রদর্শনের সামর্থ্য খর্ব করা এবং মিত্র দেশগুলোকে দুর্বল করার চেষ্টা করছে।
মার্কিন জেনারেল সম্ভবত জাপান ও ভারতের প্রতি ইংগিত করেছেন। চীনের সঙ্গে চলতি বছর এই দুটি দেশের যথাক্রমে দক্ষিণ চীন সাগর ও দোকলাম উপত্যকায় ভূখণ্ড নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়।
ডানফোর্ড বলেন, চীনের নেতারা নিকট ভবিষ্যতে প্রতিরক্ষা ব্যয় বাড়াবেন বলে মনে হচ্ছে। চীনের সেনাবাহিনী আধুনিকায়নের সম্ভাব্য উদ্দেশ্য হলো প্রযুক্তিগত সুবিধার দিক দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীকে পেছনে ফেলা। ২০০৭ সাল থেকে বেইজিং প্রতিবছর গড়ে ৮.৫% হারে প্রতিরক্ষা ব্যয় বাড়িয়ে চলেছে। তাই এর সঙ্গে তাল মেলাতে যুক্তরাষ্ট্রেরও প্রতিরক্ষা ব্যয় প্রতিবছর ৩ থেকে ৭ শতাংশ বাড়াতে হবে বলে ডানফোর্ড মনে করেন।
তবে, সিনেট ২০১৮ সালের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা ব্যয় ৬৯২ বিলিয়ন ডলার অনুমোদন করেছে। যা বিগত বছরের তুলনায় ১০.৫% বেশি।
গত বছর আফ্রিকার জিবুতিতে চীন প্রথমবারের মতো তার বৈদেশিক সামরিক ঘাঁটি স্থাপন করে। দক্ষিণ ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া এবং পূর্ব আফ্রিকায় আরো এক ডজন এমন ঘাঁটি স্থাপনের চিন্তাভাবনা চলছে বলে জানা গেছে। তবে ২০২৫ সাল আসতে এখনো বাকি আছে।
২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য উত্তর কোরিয়া সবচেয়ে বড় হুমকি বলে মার্কিন জেনারেল মনে করেন। বিশেষ করে পিয়ংইয়ং যেভাবে তার আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র ও পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে তাকে জরুরিভিত্তিতে থামানো প্রয়োজন।
ডানফোর্ড রাশিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র ও ইলেক্ট্রনিক যুদ্ধ পরিচালনার সামর্থ্যের প্রশংসা করেন, যেগুলোকে সাধারণভাবে যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে উন্নত বলে মনে করা হয়। সার্বিক সামরিক সামর্থ্যের দিক দিয়ে রাশিয়া এখনো চীন থেকে এগিয়ে আছে বলে মনে করেন তিনি।
শুনানিতে ডানফোর্ড বলেন, মহাশূন্যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিযোগিতার সামর্থ্য বাড়াতে হবে। তাছাড়া ইলেক্ট্রনিক ওয়ারফেয়ার ও তথ্যযুদ্ধ চালানো যোগ্যতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দিতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ