ঢাকা, শুক্রবার 29 September 2017, ১৪ আশ্বিন ১৪২8, ০৮ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

গৌরনদীতে যুবদল নেতার উপর হামলা মটরসাইকেল ভাঙচুর

গৌরনদী (বরিশাল) সংবাদদাতা: বরিশালের গৌরনদী উপজেলার কসবা গ্রামের কতিপয় যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক এমএ গফুরের উপর হামলা চালিয়েছে। হামলাকারীরা এ সময় যুবদল নেতার বসত ঘরে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ও তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি ভাঙচুর করে।
উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক এমএ গফুর অভিযোগ করেন, সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্রলীগের নেতা ও সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্র সংসদের এজিএস রিজভী জামান রিয়াদ ও উপজেলা যুবলীগের সদস্য রনি খান তার বাড়ির সামনে রাস্তায় বালু জমা করে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। এতে গফুরের বাড়ি ও রাস্তা ক্ষতিগ্রস্থ হয়। গত শুক্রবার গফুর এভাবে বালু রাখতে তাদেরকে নিষেধ করলে তারা ক্ষিপ্ত হন। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সে বাড়িতে ঢোকার পথে মটরসাইকেল নিয়ে পড়ে যায়।
এ সময় তাদেরকে এখানে ব্যবসা পরিচালনা করতে পুনরায় নিষেধ করায় তারা গফুরকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এ নিয়ে বাকবিতা-ার এক পর্যায়ে যুবলীগ নেতা রনি খানের নেতৃত্বে ৬/৭ জন যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতা কর্মীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে গফুরের উপর হামলা চালায়।
প্রাণ রক্ষায় সে দৌড়ে বাড়িতে প্রবেশ করলে হামলাকারীরা ধাওয়া করে বাড়িতে গিয়ে তার বসত ঘরে হামলা চালায় এবং পিটিয়ে ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে বাড়ির ক্ষতি সাধন করে। এ সময় বাড়ির সামনে রাখা তার মটরসাইকেলটি ভাঙচুর করে  রাত ১০ টা পর্যন্ত তাকে ঘরের ভেতরে অবরুদ্ধ করে রাখে। অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে এজিএস রিজভী জামান রিয়াদ বলেন, আমার সাথে কোন ঘটনা ঘটেনি। ড্রেজার মালিক রনি খানের সাথে সমস্যা হয়েছে বলে শুনেছি। হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা যুবলীগ নেতা রনি খান বলেন, হামলার ঘটনায় আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই। গৌরনদী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, হামলার কথা শুনেছি কিন্তু লিখিত কোন অভিযোগ হাতে পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ