ঢাকা, শনিবার 30 September 2017, ১৫ আশ্বিন ১৪২8, ০৯ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বিজয়া দশমী আজ

স্টাফ রিপোর্টার : বিসর্জনের মাধ্যমে দুর্গা পূজার সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ হচ্ছে আজ শনিবার। আজ সকাল সাড়ে ৮টায় শুরু হবে বিজয়া দশমীর আনুষ্ঠানিকতা। দুপুর ১২টায় মণ্ডপে মণ্ডপে হবে সিঁদুর খেলা। বিকাল ৩টায় শোভাযাত্রা সহকারে নগরীর প্রতিমাগুলো যাবে বুড়িগঙ্গার ওয়াইজঘাটে। এছাড়াও নগরীর তুরাগ, শীতলক্ষ্যা, বালু নদীতেও প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া হবে।

বিসর্জন উপলক্ষে প্রতিটি ঘাটে নিরাপত্তা ব্যবস্থার পাশাপাশি পর্যাপ্ত আলোকসজ্জা থাকার কথা জানিয়েছেন মহানগর পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার রায়।

এ দিকে গতকাল শুক্রবার দুর্গাপূজার তৃতীয় দিন মহানবমী তিথি; এদিন ষোড়শ উপচারে দেবীর বন্দনা ও মহাস্নান-যজ্ঞ, আর সন্ধ্যায় আরতি বন্দনায় ‘আনন্দময়ী’র অর্চনা করেছেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা। 

সিদ্ধেশ্বরী কালী মন্দিরে পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হতেই মন্দির ভক্তদের আনাগোণায় পরিপূর্ণ। ফুল, ফল, জলসহ নানা উপচারে দুর্গা দেবীর চরণে অঞ্জলি প্রদান করে তারা প্রার্থনা করেছেন দেশের কল্যাণের জন্য।

হিন্দু শাস্ত্র মতে, সপ্তমী, অর্থাৎ দেবীর আগমনের দিন বুধবার এবং ফেরার দিন শনিবার হওয়ায় দুর্গা এবার আসছেন নৌকায় চড়ে, যাবেন ঘোড়ায়।

দুর্গার নৌকায় চড়ে মর্ত্যে আসার অর্থ হল- ‘শস্যবৃদ্ধিস্তুথাজলম’। অর্থাৎ শস্যবৃদ্ধির সম্ভাবনা। আর ঘোড়ায় চেপে দেবীর বিদায়ের মানে হল- ‘ছত্রভঙ্গস্তুরঙ্গমে’; মানে রাজনৈতিক উত্থান-পতন, সামাজিক বিশৃঙ্খলা, অরাজকতা, দুর্ঘটনা, অপমৃত্যুর শঙ্কা।

রাধিকা মোহন বসাক লেনের সার্বজনীন দুর্গা কমিটির সভাপতি নারায়ণ চন্দ্র দে বলেন, মায়ের গমন ঘোটকে, মানেই সমূহ বিপদ। আমরা আজ মায়ের কাছে সমবেতভাবে প্রার্থনা করছি, মা যেন এই শঙ্কা, বিপদ থেকে আমাদের সর্বদা উদ্ধার করেন। মা স্বয়ং বিপদনাশিনী। আর মাত্র একটি দিন মা থাকবেন মর্ত্য।ে আজ মাকে বলব, মা যেন কৈলাসে যাওয়ার আগে মর্ত্যবাসীকে রাঙিয়ে দিয়ে যান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ