ঢাকা, শনিবার 30 September 2017, ১৫ আশ্বিন ১৪২8, ০৯ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বগুড়ায় টাইলস্ কারখানায় পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে কিশোরকে হত্যা

 

বগুড়া অফিস: বগুড়ার কাহালুতে এবিসি টাইলস্ কারখানায় পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে রাসেল (১৮) নামের এক কিশোর শ্রমিককে হত্যা করা হয়েছে। নিহত রাসেল কাহালু উপজেলার বীরকেদার গ্রামের আব্দুল হান্নানের ছেলে। শুক্রবার ভোরে কাহালুর এবিসি টাইল্স মিলে এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় কাহালুর কালাই নওদাপাড়ার জাহাঙ্গীরের ছেলে ও একই মিলের শ্রমিক রুবেল (২৩) কে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

কাহালু উপজেলার বীরকেদারে অবস্থিত এবিসি টাইলস্ মিলে একই মেশিনে হেল্পারের কাজ করতো রুবেল ও রাসেল। বৃহস্পতিবার রাত ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত একই সাথে মেশিনের হেল্পার হিসেবে দু’জনে ডিউটি করে। ডিউটি শেষে রুবেল রাসেলের পরনের কাপড় খুলে মেশিন পরিষ্কারের হাওয়া মেশিন দিয়ে পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে দেয়। এতে রাসেল গুরুতর আহত হলে তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহিদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার দুপুরে সে মারা যায়। টাইলস মিল কর্তৃপক্ষ অভিযুক্ত রুবেলকে আটক করে থানায় খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রুবেলকে গ্রেফতার করে। এবিসি টাইলস মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামরুজ্জামান জানান, সবার অজান্তেই রুবেল এই জঘণ্য কাজটি করেছে। তবে, কেন এটা করেছে তা মিলের কেউ বলতে পারেনা।

কাহালু থানার ওসি নুর-এ আলম সিদ্দিকী জানান, গ্রেফতারকৃত রুবেল পুলিশের কাছে রাসেলের পায়ূ পথে বাতাস দেয়ার কথা স্বীকার করেছে। সে জানিয়েছে ইয়ার্কির ছলে রাসেলের পায়ূ পথে বাতাস দিয়েছিল। তাকে হত্যার কোন ইচ্ছা ছিলোনা। লাশ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। 

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা: নির্মলেন্দু চৌধুরী জানান, পায়ুপথে বাতাস ঢুকানোর কারণে রাসেলের লিভার ক্ষতিগ্রস্ত ও পেটের নাড়ীভুড়ি ছিড়ে গেছে। সকালে তাকে নিয়ে আসার পর আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে এবং কৃতিম শ^াস প্রশ^াস দিয়ে রাখা হয়েছিল। বেলা ৩টায় সে মারা যায়। রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এঘটনায় থানায় কোন মামলা দায়ের করা হয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ