ঢাকা, মঙ্গলবার 3 October 2017, ১৮ আশ্বিন ১৪২8, ১২ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

কুর্দিস্থান গণভোটের ফলাফল প্রত্যাহার না করলে সামরিক হস্তক্ষেপ -ইরাক

২ অক্টোবর, মিডল ইস্ট আই: সম্প্রতি গণভোটে স্বাধীনতা ঘোষণা করা কুর্দিস্থানের ওপর সামরিক হস্তক্ষেপের ঘোষণা দিয়েছে ইরাক। ইয়েনিসাফাকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরাকের প্রশাসন জানিয়েছে, কুর্দিস্থান গণভোটের ফলাফল প্রত্যাহার না করলে প্রয়োজনে এই অঞ্চলের ওপর সামরিক হস্তক্ষেপ চালানো হবে।
ইরাক আরো জানায়, কুর্দিস্থানের ওপর নিয়ন্ত্রণ নিতে ইরান ও তুরস্কের সহায়তা নেয়া হবে। ইতোমধ্যে তিন যৌথ বাহিনী কুর্দি সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের বিষয়ে ঐক্যমতে পৌঁছেছে। যদিও কুর্দিস্থানের প্রশাসন ইরাকের সরকারের কাছে তাদের সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ দেয়ার কথা প্রত্যাখ্যান করেছে।
ইরাকের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, কোন রকম পূর্ব সংকেত ছাড়াই তারা তুরস্ক ও ইরানের সহযোগিতায় কুর্দি সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করবে। ইরাকের সেনা প্রধান জেনারেল ওসমান গানিমি ইরান সফরে বলেছেন, ইরান এবং ইরাক কুর্দি সীমান্তের নিরাপত্তা রক্ষায় যৌথ সহযোগিতা প্রদানের বিষয়ে একমত হয়েছে।
ইয়ানিসাফাকের প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, যৌথ অভিযানের আওতায় প্রথমেই কুর্দিস্থানের হাবুর সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের কথা জানিয়েছে ইরাকি সেনা বাহিনী। এই সীমান্ত কুর্দি প্রশাসন বাণিজ্য এবং আন্তর্জাতিক যোগাযোগের জন্য ব্যবহার করে থাকে। ইরাক এই বাণিজ্য পথ নিজেদের সেনা বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রাখতে চায়। ইরাকের পক্ষ থেকে আরো বলা হয়, যে কোন মুহূর্তে তুরস্ক এবং ইরানও প্রয়োজনে এর নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করতে পারে।
ইতোমধ্যে তুরস্ক স্বাধীনতার পক্ষে গণভোটের জন্য কুর্দিস্থানের ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দেয়। গণভোটের পক্ষে রায়ের পর ইরাক কুর্দিস্থানের তেল সংযোগ পাইপলাইন কেটে দেয়ার হুমকি দেয়। সর্বশেষ ইরাকের পক্ষ থেকে গণভোটের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করা না হলে প্রয়োজনে সামরিক হস্তক্ষেপ চালানোর হুমকি দেয়া হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ