ঢাকা, মঙ্গলবার 3 October 2017, ১৮ আশ্বিন ১৪২8, ১২ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সরকার দেশেকে রাজনীতি মুক্ত করে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠার পাঁয়তারা করছে

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের আমীর নূরুল ইসলাম বুলবুল, মহানগরী সেক্রেটারি ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদসহ গ্রেফতারকৃত নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবিতে গত রোববার জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করে -সংগ্রাম

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ শাখার আমীর নূরুল ইসলাম বুলবুলসহ গ্রেফতারকৃত নেতৃবৃন্দকে সাঁজানো দু’টি মামলায় রিমান্ড বাতিল ও অবিলম্বে মুক্তির দাবিতে গত রোববার সকাল ১০টায় বিক্ষোভ মিছিল করে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ। বিক্ষোভ মিছিলটি রাজধানীর খিলগাঁও রেলগেট থেকে শুরু হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

বিক্ষোভ মিছিল উত্তর সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার বিরোধী দল দমনের জন্য বিরাজনীতিকরণের পথ বেছে নিয়েছে। ফলে তারা অন্যায়ভাবে ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের আমীর নূরুল ইসলাম বুলবুলসহ জামায়াত নেতা কর্মীদের গ্রেফতার করছে। অবিলম্বে গ্রেফতারকৃত নেতৃবৃন্দের মিথ্যা মামলায় প্রদত্ত রিমান্ড বাতিল করে তাদের মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় মুক্তিকামী মানুষ গণ-আন্দোলনের মাধ্যমে নেতৃবৃন্দকে মুক্ত করে নিয়ে আসবে। তারা হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, জামায়াত নেতৃবৃন্দের সাথে যদি কোন অন্যায় আচরণ করা হয় তাহলে সরকারকে তার জন্য জবাব দিতে হবে।

নেতৃবৃন্দ আরোও বলেন, সরকার ইতোমধ্যেই দেশের গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ধ্বংস করে দিয়েছে। তারা জাতীয় ঐকমত্যের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত কেয়ারটেকার সরকার পদ্ধতি বাতিল করে জনগণের ভোটাধিকার ছিনিয়ে নিয়েছে। রাজনৈতিক দল ও সকল নাগরিকের রাজপথে রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন সাংবিধানিক অধিকার হলেও সরকার বিরোধী দল ও জনগণকে সে অধিকার থেকে বঞ্চিত করছে। এমনকি বিরোধী দলের ঘরোয়া বৈঠকগুলোকে গোপন বৈঠক আখ্যা দিয়ে নেতাকর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে রিমান্ডের নামে নির্মম ও নিষ্ঠুর নির্যাতন চালানো হচ্ছে। বছরের পর বছর নেতাকর্মীদের কারাগারে আটক রেখে দেশেকে রাজনীতি মুক্ত করে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠার পায়তারা চালানো হচ্ছে।

বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কর্মপরিষদ সদস্য শামসুর রহমান, কামাল হোসেন, মহানগরী শূরা সদস্য সগীর বিন সাঈদ, জয়নাল আবেদিন, আমিনুর রহমান, মতিউর রহমান, নিজামুল হক নাঈম, আবু আব্দুল্লাহ, মুহিবুল্লাহ ফরিদ, মাহবুবুর রহমান, হাফিজুর রহমান, ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা আশরাফুল আলম ইমন, শাহিন আহমেদ খান, ছাত্রশিবিরের ঢাকা মহানগরী পূর্ব সভাপতি সোহেল রানা মিঠু, ছাত্রশিবিরের ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সেক্রেটারি ছাত্রনেতা মাসুম তারিক, জামায়াতের মতিঝিল থানা সেক্রেটারি মুতাসিম বিল্লাহ, সবুজবাগ থানা সেক্রেটারি আব্দুল বারি, রমনা দক্ষিণ থানা সেক্রেটারি আব্দুস সাত্তার সুমন, কদমতলী থানা সেক্রেটারি মনির হোসেন, ডেমরা থানা সেক্রেটারি এম. আলী হোসেন, ছাত্রনেতা যোবায়ের সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ