ঢাকা, মঙ্গলবার 3 October 2017, ১৮ আশ্বিন ১৪২8, ১২ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আশুগঞ্জে দুলাভাইয়ের বিরুদ্ধে শ্যালক খুনের অভিযোগ

আশুগঞ্জ সংবাদদাতা: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার সোনারামপুর এলাকার ফরিদ মিয়ার (৪৮) ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে বৃহস্পতিবার রাতে খুরশেদ মিয়া (৩৮) নামে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।নিহত খুরশেদ মিয়া পেশায় একজন মাছ ব্যবসায়ী।সে একই উপজেলার সোহাগপুর গ্রামের ইসলাম মিয়ার ছেলে।খুরশেদ মিয়াকে হত্যা করার অভিযোগে শুক্রবার বিকালে তার দুলাভাই ফরিদ মিয়ার বাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগ করেছে প্রতিক্ষের লোকজন। এতে ১০ ঘর আগুনে পুড়ে ভুস্মিভুত হয়ে প্রায় ২ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।এনিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শি সূত্রে জানাযায়, খুরশেদ তার বোন বেদেনা বেগমের স্বামী ফরিদ মিয়ার কাছে জায়গা বিক্রির টাকা পাওনা ছিল।বৃহস্পতিবার সন্ধায় ফরিদ মিয়া জমি বিক্রির অর্ধেক টাকা নেয়ার জন্য খুরশেদকে সোনারামপুর এলাকায় তার তুষ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আসতে বলেন। পরে রাত ১১টায় নিহতের চাচাতো ভাই জামালসহ পরিবারের লোকজন থানায় এসে জানান খুরশেদ মেরে ফরিদ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঝুলিয়ে রেখেছে।এ খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ফরিদ মিয়ার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের অফিস কক্ষে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় খুরশেদ এর লাশ উদ্বার করে।
এদিকে ফরিদ মিয়া তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ডেকে নিয়ে খুরশেদ মিয়াকে হত্যা করার অভিযোগে শুক্রবার বিকালে প্রতিপক্ষের বাড়িতে হামলা চালিয়ে অগ্নিসংযোগ করেছে সোহাগপুর গ্রামের পাগলা বাড়ির লোকজন।আগুনে ফরিদ মিয়ার বাড়ির ১০টি ঘর সম্পূর্ণভাবে পুড়ে যায়।খবর পেয়ে আশুগঞ্জ ও ভৈরবের ফায়ার সার্ভিসের দুটি দল ঘটনাস্থলে পৌছে প্রায় এক ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এতে প্রায় ২ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ