ঢাকা, মঙ্গলবার 3 October 2017, ১৮ আশ্বিন ১৪২8, ১২ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

পৃথক ঘটনায় ৭ জনের মৃত্যু

চট্টগ্রাম অফিস : চট্টগ্রাম নগর ও জেলায় গত তিনদিনে পৃথক ঘটনায় ৭ জনের মৃত্যু। সোমবার বেলা ১১টার দিকে নগরীর মনসুরাবাদের কৈবল্যধাম মন্দির এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাত পরিচয় এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত যুবকের নাম জানা যায়নি। রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, তার বয়স আনুমানিক ৩৫ বছর হবে। 
গত রোবাবার দুপুরে সীতাকুন্ডে মাথার ওপর বস্তা পড়ে আক্তার হোসেনের (২২) নামে এক তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিক নিহত হয়েছে। নিহত আক্তার হোসেনের বাড়ি লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর এলাকায়। তিনি সেখানকার মৃত ওসমান গণি পাটোয়ারির সন্তান। আক্তার স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন।
স্ত্রীকে ধারালো ছরি দিয়ে আঘাত  করে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে গুরুতর আহত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা সেই মিঠু দাস মারা গেছেন। রোববার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে তার মৃত্যু হয়। অন্যদিকে তার স্ত্রী রিকু দাস এখনও আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
 রোববার দুপুরের নগরীর অক্সিজেন মোড় এলাকায় বাসের ধাক্কায় নিহত হয় শিশু ইয়াছিন আরাফাত (১০)। চমেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক মোহাম্মদ আমির জানান জানান, শিশুটির বাসা অক্সিজেন মোড় এলাকায়। শিশুটির মা আমাদের বলেছেন, বাসায় কাজ করার সময় শিশুটি কখন বের হয়ে রাস্তায় চলে যায় সেটি তিনি টের পাননি। পরে খোঁজাখুজি করার সময় জানতে পারেন তার ছেলে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে। এরপর  তিনি হাসপাতালে আসেন।
পারিবারিক কলহের জেরে চট্টগ্রাম নগরীতে একদিনে দুই শিশুসহ ৩ জন আত্মহত্যা করেছেন। গত শনিবার বেলা ১২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে নগরীর সদরঘাট, বায়েজিদ ও কাট্টলি এলাকায় এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে। তারা হলেন- নগরীর সদরঘাট থানার উত্তর নালাপাড়া এলাকার প্রতিবন্ধী আবুল কালামের মেয়ে মোছাম্মৎ পিংকি (১৩), বায়েজিদ থানার বালুচরা এলাকার মো. ইউসুফের মেয়ে রোজিনা আকতার (১৪) ও দক্ষিণ কাট্টলী এলাকার অভিজিৎ দত্তের স্ত্রী মনিষা দাশ (২৫)। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই শীলাব্রত বড়ুয়া জানান, পারিবারিক কলহের জেরে একদিনে ৩ জন আত্যহত্যা করেছেন। এরমধ্যে সদরঘাটের আকতার মিয়ার কলোনিতে সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় পরিবারের সাথে ঝগড়া করে পোশাক শ্রমিক পিংকি, একই কারণে বালুচরা এলাকায় বেলা ১২টার দিকে বিষ খেয়ে রোজিনা আকতার এবং দক্ষিণ কাট্টলি পানহরি রোডে রাত ৮টার দিকে মনিষা দাশ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ