ঢাকা, মঙ্গলবার 3 October 2017, ১৮ আশ্বিন ১৪২8, ১২ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

তথ্য প্রযুক্তির মামলায় জেল হাজতে প্রেরণ

নাটোর সংবাদদাতা : নাটোরের জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুনের কাছে ফোন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করায় শিলা খাতুন (২৪) নামে এক মহিলাকে আটক করে তথ্য প্রযুক্তির মামলায় জেলা হাজতে পাঠনো হয়েছে। রোববার বেলা বরোটার দিকে শহরের স্টেশন বাজার এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। শিলা খাতুন সিংড়া উপজেলার কলম ইউনিয়নের পালপাড়া গ্রামের রহিম মিয়ার মেয়ে। গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল হাই জানান, গত ২৯ সেপ্টেম্বর একটি পূজা মন্ডপ থেকে নম্বর সংগ্রহ করে রাত সাড়ে দশটার দিকে নাটোরের জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুনের মোবাইলে ফোন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে শিলা খাতুন নামে এক অপরিচিত মহিলা। জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন নোংড়া ভাষার ওইসব গালিগালাজ শুনতে অপছন্দ করায় ফোনের লাইনটি কেটে দেন। এর ঠিক এক মিনিট পরেই ওই মহিলা আবারো জেলা প্রশাসককের একই মোবাইল নম্বরে ফোন করে প্রধানমন্ত্রীকে গালিগালাজ করতে থাকে। এবারে জেলা প্রশাসক বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে নাটোরের পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদারকে অবগত করলে গোয়েন্দা পুলিশ মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং করে শিলার অবস্থান সনাক্ত করে। সেই সূত্রধরেই গোয়েন্দা পুলিশ রোববার নাটোর শহরের স্টেশন বাজার এলাকায় তার ভাড়া বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। আটক শিলা খাতুন এসএসসি পাস করে এইচএসসিতে পড়লেও ব্যক্তি জীবনে কোন কিছু করেনা। তার বিরুদ্ধে নাটোর থানায় তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা দিয়ে সোমবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠনো হয়েছে। এব্যাপারে জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন বলেন, তার কাছে ফোন করে শিলা খাতুন প্রথমে জানতে চায় তিনি প্রধানমন্ত্রী কি না। জেলা প্রশাসক উত্তরে না জবাব দিয়ে নিজেকে জেলা প্রশাসক পরিচয় দেয়ার পরেই সে অকথ্য ভাষায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গালিদেয়া শুরু করলে তিনি বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়। এক প্রশ্নের জবাবে জেলা প্রশাসক আরো জানান, মহিলা মোটেই অপ্রকৃতিস্থ নয়, সে সুস্থ মাথাতেই এসব বলেছে কারণ পরে সে তার ভুল হয়েছে স্বীকার করে জেলা প্রশাসকের পা ধরে মাফ চাইতেও রাজি ছিল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ