ঢাকা, বুধবার 4 October 2017, ১৯ আশ্বিন ১৪২8, ১৩ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বিপুল পরিমাণ ডাকাতির সরঞ্জাম উদ্ধার ৪ ডাকাত গ্রেফতার

চট্টগ্রাম অফিস : বন্দর নগরী চট্টগ্রামের কোতোয়ালী থানাধীন স্টেশন হতে বিপুল পরিমাণ ডাকাতির সরঞ্জাম উদ্ধারসহ ৪ ডাকাত গ্রেফতার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হচেছ- বাদশা মিয়া (১৯), পিতা-মৃত আবুল কালাম আজাদ, মাতা-মাহফুজা বেগম, সাং-কামেল্লা, মুহুরী বাড়ী, থানা-মুরাদনগর, জেলা-কুমিল্লা, বর্তমানে-চট্টগ্রাম শহরে ভাসমান,  মোঃ সুমন (২২), পিতা-মৃত আব্দুল মালেক, মাতা-আছিয়া খাতুন, সাং-ইলিশা, কলঘাট বাজার, জসিম মিস্ত্রীর বাড়ী, থানা-সদর, জেলা-ভোলা, বর্তমানে-চর চাক্তাই, আমীর হাজী রোড, মোজাহের সাহেবের বাসা, থানা-বাকলিয়া, জেলা-চট্টগ্রাম,  মোঃ কাশেম আলী (২৮), পিতা-মোঃ তালেব আলী, মাতা-সাজেদা বেগম, সাং-কামেল্লা, কলেজের পার্শ্বে সেলিম মেম্বারের বাড়ী, থানা-মুরাদনগর, জেলা-কুমিল্লা, বর্তমানে-তুলাতলী আবাসিকের মুখে, রিক্সাচালক তালেবের ভাড়া বাসা, থানা-বাকলিয়া, জেলা-চট্টগ্রাম,  মোঃ সাব্বির হোসেন (২০), পিতা-মৃত জাহাঙ্গীর মিয়া, মাতা-সাজু বেগম, সাং-পালাসুতা, জাহাপুর, সাগর মিয়ার বাড়ী, থানা- দেবিদ্ধার, জেলা-কুমিল্লা, বর্তমানে-কল্পলোক আবাসিকের পরে, জাইল্লাচর, সাব্বিরের ভাড়া বাসা, থানা-বাকলিয়া, জেলা-চট্টগ্রাম এবং পলাতক  মোঃ সোহেল (২৮), পিতা-সুমন হাওলাদার, সাং-কালামুড়িয়া, থানা-কসবা, জেলা-বি-বাড়িয়া, বর্তমানে-চাক্তাই, নয়া মসজিদ, বাদশা মিয়ার কলোনী, কবরস্থানের পাশের গলি, থানা-বাকলিয়া, জেলা-চট্টগ্রাম।
 ২ অক্টোবর  সন্ধ্যা ৭.৩০ টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের পুলিশ জানতে পারে যে যে, একদল ডাকাত কোতোয়ালী থানাধীন স্টেশন রোডস্থ নতুন রেলওয়ে স্টেশনের বিপরীতে নুপুর শপিং কমপ্লেক্স এর  নীচতলায় পূরবী ফুডস নামক দোকানের সামনে   ডাকাতি করার জন্য সমবেত হয়েছে। এ  সংবাদের ভিত্তিতে গোয়েন্দ পুলিশের টিম   সেখানে  গিয়ে অভিযান পরিচালনা করে ৫ জনকে ডাকাতি করার সরঞ্জাম সহ গ্রেফতার  করে। ডিবি পুলিশ  বাদশা মিয়া’র কাছ  হতে ১টি ছুটি, ০১টি স্ক্রু, ১টি মোবাইল, মোঃ সুমন’র নিকট হতে ৩টি শপিং ব্যাগ, ২টি বিছানার চাদর, ১টি লোহার প্লেট বার, ১টি মোবাইল, মোঃ কাশেম আলী’র নিকট হতে ১টি ট্রাভেল ব্যাগ, ১টি লোহা কাটার যন্ত্র, মোঃ সাব্বির’র নিকট হতে ১টি ছুরি উদ্ধার করে।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামীরা কোতোয়ালী থানাধীন লালদীঘি জেলা পরিষদ মার্কেটে ডাকাতির উদ্দেশ্যে সেখানে   সমবেত হয় এবং আসামীরা ইতিপূর্বে চট্টগ্রাম মহানগর, চট্টগ্রাম জেলা, ঢাকা মহানগর, কুমিল্লা জেলা, নোয়াখালী জেলা, বগুড়া জেলার বিভিন্ন থানা এলাকার বিভিন্ন মার্কেট সহ বাসা বাড়িতে সংঘবদ্ধভাবে অপরাধমূলক কর্মসম্পাদন করেছে বলে স্বীকার করে। আসামীদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালী থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ