ঢাকা, বুধবার 4 October 2017, ১৯ আশ্বিন ১৪২8, ১৩ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

খুলনায় ছাত্রদল নেতা শিবলু হত্যা মামলার আসামীর মা ও স্ত্রীকে গণপিটুনী

খুলনা অফিস : খুলনা মহানগরীর দৌলতপুরে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত সরকারি বিএল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্রদল নেতা আব্দুল্লাহ আল ফয়সাল শিবলু মোল্লা হত্যা মামলার আসামী জসিমের স্ত্রী ইতি বেগম ও তার মা শামসুন নাহারকে গণপিটুনী দিয়েছে এলাকাবাসী। দৌলতপুর থানা পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে ভর্তি করেছে। সোমবার রাতে নগরীর দৌলতপুর দেয়ানা হাসপাতাল মোড়ে শিবলু হত্যাস্থলে এ ঘটনাটি ঘটে।
এলাকাবাসীরা জানায়, আসামী আরিফ, রহমত ও বাবুর মা এবং ভাবী এলাকায় অবস্থান করছে এমন সংবাদে এলাকার কয়েকজন তাদের উপর হামলা চালায়। এ সময় উত্তেজিত মহিলারা আসামী জসিমের স্ত্রী ইতি বেগম ও তার মা শামসুন নাহারের মাথার চুল কেটে নেয়। এক পর্যায়ে তারা দু’জনই জ্ঞান হারিয়ে ফেললে এলাকার মহিলারা শিবলু হত্যার স্থানে ফেলে চলে যায়। দৌলতপুর থানা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে ভর্তি করে।
দৌলতপুর থানার এস আই আব্দুল হালিম জানান, তাদের নির্যাতনের খবর শুনে আমরা ঘটনাস্থলে ছুটে যাই এবং উদ্ধার করে খুমেক হাসপাতালে ভর্তি করি। আহতরা জানিয়েছে, নিহত শিবলুর পিতা বাবু মোল্লাসহ এলাকার কয়েকজন তাদের নির্যাতন করে মাথার চুল কেটে দিয়েছে।
দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, এ বিষয়ে এখনও কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। উল্লেখ্য, গত ২০ জুন রাত সোয়া ১০টার দিকে দৌলতপুর থানাধীন দেয়ানা হাসপাতাল গেটের পাশে সন্ত্রাসীরা শিবলু মোল্লাকে কুপিয়ে হত্যা করে। নিহত শিবলু মোল্লা খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কবির হোসেন কবু মোল্লার ভাইপো। এ ঘটনায় নিহতের পিতা মো. ফারুকুজ্জামান ওরফে বাবু মোল্লা বাদি হয়ে একই এলাকার আমির আলী শেখের ১০ ছেলেসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে দৌলতপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ