ঢাকা, বুধবার 11 October 2017, ২৬ আশ্বিন ১৪২8, ২০ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

জামায়াতের আমীর সেক্রেটারি জেনারেলসহ ৮ জন ১০ দিনের রিমান্ডে

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর মকবুল আহমাদ, নায়েবে আমীর অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার, সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমানসহ রাজধানীতে গ্রেফতারকৃত ৯ নেতাকমীকে গতকাল আদালতে হাজির করা হয় -সংগ্রাম

 

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ জাময়াতে ইসলামীর আমীর মকবুল আহমাদ, সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমানসহ গ্রেফতারকৃত ৮ নেতাকর্মীকে দুই মামলায় পাঁচদিন করে ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম গোলাম নবী রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কদমতলী থানার পরিদর্শক মো. সাজু মিঞা দুই মামলায় প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ১০ দিন করে মোট ২০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আদালত জামিন না মঞ্জুর করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। 

রিমান্ডে নেয়া অন্যরা হলেন, কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর মিয়া গোলাম পরওয়ার, চট্টগ্রাম মহানগরীর আমীর মোহাম্মদ শাহজাহান, সেক্রেটারি নজরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার আমীর জাফর সাদেক, সেক্রেটারি জেনারেলের ব্যক্তিগত সহকারী নজরুল ইসলাম ও সাইফুল ইসলাম।

শুনানী শেষে এডভোকেট আবদুর রাজ্জাক বলেন, জামায়াতের শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে রাজধানীর উত্তরা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অথচ তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে কদমতলী থানার দু’টি মামলায়। যে দুটি মামলায় এজহারভুক্ত আসামী করা হয়েছে ২৪ জনকে। এ ছাড়া অজ্ঞাতনামা আরো ১০/১২ জনের কথা উল্লেখ রয়েছে। তিনি বলেন, কদমতলীতে ঘটনাস্থল থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছিল ১০জনকে। দু’দিন আগে বংশাল থেকে গ্রেফতার হওয়া ৯জনকেও এই মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। তারা এজহারভুক্ত ছিল না। এখন আবারো একই মামলায় আরো ৮জনকে গ্রেফতার দেখানো তারাও এজহারভুক্ত ছিলেন না। অজ্ঞাতনামা ১০/১২ জনের স্থলে এতো মানুষ গ্রেফতার করা রহস্যজনক। 

তিনি ্আরো বলেন, মামলায় এজহারভুক্তদের তিনদিন করে রিমান্ড দেয়া হয়। তাদের বেলায় ৫ দিনের রিমান্ড অযৌক্তিক। তিনি বলেন, শুধুমাত্র রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে হয়রানি করার জন্যই নেতৃবৃন্দকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

আদালতে নেতৃবৃন্দের পক্ষে আদালতে ছিলেন ঢাকা বারের সাবেক সভাপতি এডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া, বর্তমান সভাপতি এডভোকেট খুরশেদ আলম মিয়া, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট গোলাম মোস্তফা খান, এডভোকেট এসএম কামাল উদ্দিন, এডভোকেট আবদুর রাজ্জাক, সুপ্রীম কোর্ট বারে সাবেক সহ-সম্পাদক এডভোকেট গিয়াস উদ্দিন মিঠু ও এডভোকেট সাইফুর রহমান, এডভোকেট ইউসুফ আলী, এডভোকেট হেলাল উদ্দিন, এডভোকেট পারভেজ হোসেন, এডভোকেট লুৎফর রহমান আজাদ, এডভোকেট আবু বাক্কার, এডভোকেট আবুল কালাম জোয়ার্দার, এডভোকেট রোকন রেজা শেখ, এডভোকেট মহিউদ্দিন, এডভোকেট শামসুল ইসলাম আকন্দ, এডভোকেট আবদুল হান্নান, এডভোকেট আবদুর রাজ্জাক, এডভোকেট শামসুজ্জামান, এডভোকেট জালাল উদ্দিন, এডভোকেট আবদুল করিমসহ শতাধিক আইনজীবী। 

উল্লেখ্য, গত সোমবার রাত সোয়া ৯টার দিকে রাজধানীর উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টর এলাকার একটি বাসায় তাদের গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের ডিবি কার্যালয়ে আনা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ