ঢাকা, শনিবার 14 October 2017, ২৯ আশ্বিন ১৪২8, ২৩ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

একেবারে ডাহা মিথ্যা ও গভীর ষড়যন্ত্রমূলক -তাসনীম আলম

দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকার শেষ পৃষ্ঠায় “বিএনপি-জামায়াতকে সরকার উৎখাতে আইএসআইর মদদ” শিরোনামে গতকাল শুক্রবার প্রকাশিত ভিত্তিহীন মিথ্যা রিপোর্টের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় প্রচার বিভাগের সেক্রেটারি অধ্যাপক মোঃ তাসনীম আলম বলেন, দৈনিক জনকণ্ঠের রিপোর্টে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীকে জড়িয়ে যে সব কথা লেখা হয়েছে তা সর্বৈব মিথ্যা। 

গতকাল দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকার ভিত্তিহীন মিথ্যা রিপোর্টের জবাবে আমি স্পষ্ট ভাষায় জানাতে চাই যে, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী নিয়মতান্ত্রিক গণতান্ত্রিক ধারার স্বচ্ছ রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। নাশকতা, জ্বালাও-পোড়াও ইত্যাদি ধ্বংসাত্মক কর্মাকাণ্ডের মাধ্যমে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করার অসুস্থ রাজনীতিকে জামায়াতে ইসলামী সব সময়ই ঘৃণা করে। এ ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সাথে জামায়াতের কোন সম্পর্ক নেই। 

তিনি বলেন, পাকিস্তানী গোয়েন্দা সংস্থার সাথে জামায়াতে ইসলামীর কোন সম্পর্ক নেই। তাই জামায়াতের গ্রেফতারকৃত নেতৃবৃন্দকে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের সময় আইএসআইর সাথে কানেকশনের তথ্য পাওয়ার প্রশ্নই আসে না। আইএসআইর মদদে কথিত সরকার উৎখাতের চেষ্টার যে অভিযোগ জামায়াতের বিরুদ্ধে জনকণ্ঠের রিপোর্টে করা হয়েছে তা একেবারে ডাহা মিথ্যা এবং গভীর ষড়যন্ত্রমূলক। 

তিনি বলেন, জামায়াতের সাথে কোন জঙ্গি সংগঠনের কোন সম্পর্ক নেই। কাজেই তাদের নিয়ে মাঠে নামা কিংবা অর্থায়ন করা, পরিকল্পনা করা ও প্রশিক্ষণ দেয়ার প্রশ্ন অবান্তর। চাঁপাইনবাবগঞ্জে নিহত রফিকুল ইসলাম আবু, তার পরিবার, তার স্ত্রী ও তার শ্বশুর বাড়ির লোকদের সাথে জামায়াতের কোন সম্পর্ক নেই। এ ধরনের মিথ্যা তথ্যের প্রতিবাদে ইতোপূর্বেও আমরা বিবৃতি দিয়েছি তা সত্ত্বেও দৈনিক জনকণ্ঠে ভিত্তিহীন মিথ্যা তথ্য প্রকাশ করে জনগণকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। 

তিনি আরো বলেন, গত ১২ অক্টোবর দৈনিক জনকণ্ঠ জামায়াতের বিরুদ্ধে এ ধরনের একটি ভিত্তিহীন মিথ্যা রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। আমরা তার প্রতিবাদ করা সত্ত্বেও তারা তা প্রকাশ না করে গতকাল আবার একই ধরনের আরেকটি মিথ্যা রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। তাদের এ ধরনের ভিত্তিহীন মিথ্যা রিপোর্ট প্রকাশ করা দুরভিসন্ধিমূলক। 

জামায়াতকে জড়িয়ে এ ধরনের ভিত্তিহীন মিথ্যা রিপোর্ট প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকার জন্য তিনি দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকা কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ