ঢাকা, শনিবার 14 October 2017, ২৯ আশ্বিন ১৪২8, ২৩ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

গ্রেফতার করে কোন আদর্শকে কোনভাবেই নির্মূল করা যায় না -হারুন-অর-রশিদ খান

বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন এর কেন্দ্রীয় সভাপতি সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ারসহ জাতীয় নেতৃবৃন্দর মুক্তি কামনায় গতকাল শুক্রবার রাজধানীরসহ দেশব্যাপী দোয়া দিবস পালন করেছে শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন। এ উপলক্ষে বিভিন্ন স্থানে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
কেন্দ্রের উদ্যোগে রাজধানীতে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে অধ্যাপক হারুন-অর-রশিদ খান বলেন, দেশ থেকে ইসলামী শ্রমনীতি প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টাকে নির্মূলের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবেই প্রখ্যাত শ্রমিক নেতা বরেণ্য রাজনীতিবিদ, পরিচ্ছন্ন ব্যক্তিত্ব, সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ারসহ জাতীয় নেতৃবৃন্দকে সরকার অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করেছে। কিন্তু কোন নেতাকে গ্রেফতার করে কোন আদর্শকে কোনভাবেই নির্মূল করা যায় না বরং তা জোরালো ও গতিশীল হয় এবং নেতাকর্মীদের মধ্যে নতুন উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়। তিনি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ারসহ জাতীয় নেতৃবৃন্দকে অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন এবং তাদের সুস্থতা কামনায় মহান আল্লাহ দরবারে দোয়া করেন।
বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন আয়োজিত দোয়ার মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লস্কর মোঃ তাসলিমের পরিচালনায় এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় সহ-পাঠাগার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ মহিবুল্লাহ, কেন্দ্রীয় সহ-শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক মোঃ আবদুল্লা বাসির ও মহানগরী উত্তরের সহকারী সেক্রেটারি শ্রমিক নেতা এইচ এম আতিকুর রহমান, আবদুল হাই, চৌধুরী নুরুজ্জামান প্রমুখ।
হারুন-অর-রশিদ খান বলেন, অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার তিনি দেশ ও জাতির বিশেষ করে শ্রমিকদের কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ ছিলেন। তিনি সংসদ সদস্য হিসেবে দেশের মানুষের, শ্রমিকের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করেন ফলে তিনি প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষায়, আর্তমানবতার কল্যাণে এবং ইসলামী শ্রমনীতি প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে তিনি নিবেদিত, নিষ্ঠাবান, অবিচল ও আপোষহীন। মূলত: তার শ্রমিক সমাজে নেতৃত্বের দূরদর্শিতা, প্রজ্ঞা এবং সাফল্যে ঈর্ষাকাতর হয়ে সরকার শ্রমিক নেতৃত্বশূন্য করতেই তাকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতারের মত ঘৃণ্য কাজটি করেছে। কিন্তু সচেতন শ্রমিক জনতা সরকারের সে ষড়যন্ত্র কখনোই মেনে নেবে না। তিনি সরকারকে প্রতিহিংসার রাজনীতি পরিহার অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ারসহ জাতীয় নেতৃবৃন্দকে মুক্তি দিয়ে দেশ ও জাতির মাঝে ফিরিয়ে দেয়ার আহ্বান জানান।
ঢাকা মহানগরী উত্তর : শ্রমিক কল্যাণ ঢাকা মহানগরী উত্তরের সভাপতি লস্কর মোঃ তাসলিম বলেন, সরকার অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার সহ জাতীয় নেতৃবৃন্দকে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করেছে। কিন্তু সচেতন শ্রমিক জনতা সরকারের এই জুলুম নির্যাতন কখনোই মেনে নেবে না। তিনি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার সহ জাতীয় নেতৃবৃন্দর মুক্তির জন্য আল্লাহ দরবারে দোয়া করেন।
শ্রমিক কল্যাণ ঢাকা মহানগরী উত্তর আয়োজিত দোয়া পূর্ব আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। মহানগরী উত্তরের সেক্রেটারি মোঃ মহিবুল্লাহর পরিচালনায় দোয়া মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন সহ-সেক্রেটারি এইচ এম আতিকুর রহমান, অন্যান্য নেতৃবৃন্দের মধ্যে ছিলেন মোঃ সাহিদুর রহমান মোল্লা, মোঃ বসির আহামেদ, মোঃ নজরুল ইসলাম, আবু হানিফ প্রমুখ।
ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ : শ্রমিক কল্যাণ ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি মোঃ আব্দুস সালাম বলেন, অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ারসহ জাতীয় নেতৃবৃন্দকে সরকার অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করেছে। সরকারের দমন, পীড়ন, জুলুম, নির্যাতন, নিপীড়ন থেকে বাংলাদেশের শ্রমিক সহ কোন মানুষ আজ নিরাপদ নয়। সরকার পরিকল্পিতভাবে গণহত্যা, গণনির্যাতন, গণগ্রেফতার, গণসন্ত্রাস দেশকে এক ভয়াবহ নৈরাজ্যের দিকে ঠেলে দিয়েছে। তিনি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ারসহ জাতীয় নেতৃবৃন্দর মুক্তির জন্য আল্লাহ দরবারে দোয়া করেন।
রাজধানীর একটি মসজিদে বাদ জুমা শ্রমিক কল্যাণ ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ আয়োজিত দোয়া পূর্ব আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এই কথা বলেন। মহানগরী দক্ষিণের সেক্রেটারি মোঃ মোশারফ হোসেন চঞ্চলের পরিচালনায় দোয়া মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সহ সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম কোষাধ্যক্ষ মোঃ জয়নাল প্রমুখ। 
খুলনা মহানগরী: খুলনা মহানগরীর উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ফেডারেশনের খুলনা মহানগরী সভাপতি গোলাম রসূলের সভাপতিত্বে সেক্রেটারি মাহফুজুর রহমানের পরিচালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন ক্রিসেন্ট জুট মিলের নির্বাচিত সহ-সভাপতি সোহরাব হোসেন, শ্রমিক নেতা মোঃ ইউনুছ সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
নারায়ণগঞ্জ জেলা: নারায়ণগঞ্জ জেলার উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ফেডারেশনের জেলা সভাপতি মোঃ আজগর হোসাইনের সভাপতিত্বে সেক্রেটারি মোঃ আব্দুল মজিদের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ উল্লাহ বলেন, সরকার নিজেদের নানা ব্যর্থতা ঢাকতে শ্রমিক নেতৃবৃন্দ এবং জাতীয় নেতৃবৃন্দসহ বিরোধীদলকে দমন করে রাজপথের আন্দোলন সংগ্রামকে মোকাবিলা করতে একটি ঘৃণ্য কৌশল হিসাবে তারা এই গ্রেফতারের রাজনীতি বেছে নিয়েছে। তিনি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার সহ জাতীয় নেতৃবৃন্দকে অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন এবং তাদের সুস্থতা কামনায় মহান আল্লাহ দরবারে দোয়া করেন।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন থানা শাখার সভাপতিসহ স্থানীয় শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।
রংপুর মহানগরী: রংপুর মহানগরীর উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ফেডারেশনের রংপুর মহানগরী সভাপতি শাহ মোহাম্মদ নুর হোসাইন সভাপতিত্বে সেক্রেটারি আব্দুল মোত্তালেব পরিচালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন কোতয়ালী থানা সভাপতি শাহজান সিরাজ,পরিবহন শাখার সভাপতি নজরুল ইসলাম, দোকান কর্মচারী ইউনিয়ন সভাপতি আলমগির হোসেন। শ্রমিক নেতৃবৃন্দর মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন আব্দুল হালিম,মুরতুজার রহমান,আব্দুল খালেক প্রমুখ।
মাদারীপুর জেলা: মাদারীপুর জেলার উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ফেডারেশনের জেলা সভাপতি মোঃ দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে স্থানীয় একটি মসজিদে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সদর শাখার সভাপতি মোঃ মনিরুজ্জামানসহ স্থানীয় শ্রমিক নেতৃবৃন্দ। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ