ঢাকা,বৃহস্পতিবার 19 October 2017, ৪ কার্তিক ১৪২8, ২৮ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

এশিয়া হকিতে বাংলাদেশের আজ আসল পরীক্ষা

স্পোর্টস রিপোার্টার : দীর্ঘ ৩২ বছর পর ঘরের মাঠের এশিয়া কাপ হকিতে বাংলাদেশ প্রথম তিন ম্যাচের একটিতেও ভালো খেলা উপহার দিতে পারেনি। আজ  ষষ্ঠ হওয়ার লড়াই- এশিয়া কাপ শুরুর অনেক আগে থেকেই এমন প্রত্যাশা ছিল বাংলাদেশের কোচ-খেলোয়াড়রা।ষষ্ঠ হতে পারলে এক ঠিলে দুই পাখি মারা হবে লাল-সবুজ জার্সিধারীদের। আগের এশিয়া কাপের চেয়ে অবস্থার উন্নতি হবে এবং খেলতে হবে না পরের এশিয়া কাপের বাছাই পর্ব। ষষ্ট হওয়ার জন্য চাই আজ স্থান নির্ধারণী পর্বের প্রথম ম্যাচ জয়। আজ রাত ৮ টায় মওলানা ভাসানি স্টেডিয়ামে শুররু হবে বাংলাদেশ ও চীনের ম্যাচটি। জিতলে ষষ্ঠস্থান নিশ্চিত তো হবে, সুযোগ থাকবে পঞ্চম হওয়ারও। জিতে অন্তত ষষ্ঠ স্থান নিশ্চিত করতে চায় লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

প্রতিপক্ষ হিসেবে চীন শক্তিশালী। চীনের র‌্যাংকিং ১৮, বাংলাদেশের ৩৪। দুই দলের আগের সাক্ষাতগুলোতে সাফল্য ঝুলে আছে চীনের দিকেই। যদিও শেষ সাক্ষাতে বাংলাদেশ হারিয়েছিল চীনকে। তাও এশিয়া কাপের চেয়ে বড় আসরে, ওয়ার্ল্ড লিগের রাউন্ড-২ এ।২০১৩ সালে ২০ ফেব্রুয়ারি দিল্লিতে অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচে বাংলাদেশ জিতেছিল ৩-২ গোলে। চার বছর পর আবার মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ-চীন।জাতীয় দলের প্রধান কোচ মাহবুব হারুন বলেন, ‘শুরু থেকেই লক্ষ্য ছিল স্থান নির্ধারণী ম্যাচে ভালো করা। আমাদের আসল পরীক্ষা হবে সেখানে। সে লক্ষ্যের প্রধান ধাপ আজ । আমি আশাবাদী ছেলেরা নির্দেশনা অনুযায়ী পারফরম্যান্স করতে পারলে চীনের বিপক্ষে জেতা সম্ভব। জিতলে আমাদের প্রধান লক্ষ্য ষষ্ঠ স্থানও নিশ্চিত হবে।’

গত তিন দিন চীনকে নিয়ে কাজ করেছি। তাদের ম্যাচের ভিডিওগুলো পর্যালোচনা করেছি। ওরা ফুল প্রেসে খেলে। এই ফুল প্রেস কিভাবে মোকাবেলা করতে হবে তা ছেলেদের শেখানো হয়েছে। চীনের আক্রমণ করার পদ্ধতি নিয়েও বিশেষ কাজ হয়েছে’- জবাব বাংলাদেশের প্রধান কোচ মাহবুব হারুনের।

আমি মনে করি, চীনকে হারাতে পারলে আগের ব্যর্থতাগুলো সবাই ভুলে যাবে। জিতবো বলে আমি আশাবাদী।’

চার বছর আগে দিল্লিতে চীনের বিপক্ষে করা তিন গোলদাতা মামুনুর রহমান চয়ন, মাইনুল ইসলাম কৌশিক ও পুস্কর ক্ষিসা মিমো আছেন এই দলেও। আছেন সফল কোচ মাহবুব হারুনও। তারা নিশ্চয় চার বছর আগের দিল্লিকে ফিরিয়ে আনতে চাইবেন ঢাকাতেও।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ