ঢাকা, শুক্রবার 20 October 2017, ৫ কার্তিক ১৪২8, ২৯ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সরকার জামায়াতের আমীরকে  নিয়ে জঘন্য ষড়যন্ত্র করছে - অধ্যাপক মুজিব

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর মকবুল আহমাদসহ গ্রেফতারকৃত কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের অবিলম্বে মুক্তির দাবি জানিয়ে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান বলেন, আওয়ামী সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে জামায়াতকে নেতৃত্ব শূন্য করার অপচেষ্টা চালিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় জামায়াতে ইসলামীর নির্বাচিত আমীর মকবুল আহমাদসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে গত ৯ অক্টোবর উত্তরার এক ঘরোয়া বৈঠক থেকে গ্রেফতার করে। তিনিসহ আটক নেতৃবৃন্দকে ঢাকা মহানগরীর কদমতলী থানায় এক বানোয়াট মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয় ও ১০ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। তথাকথিত এজাহারভুক্ত আসামীকে ৩ দিনের রিমান্ড আর বানোয়াট এজাহারে যাদের নাম নেই তাদের ৫ দিন করে রিমান্ডে নিয়ে এক বিস্ময়কর ঘটনার অবতারণা করেছে বর্তমান সরকার।

গতকাল বৃহস্পতিবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, সরকার আমীরে জামায়াতকে নিয়ে এক জঘন্য ষড়যন্ত্র করছে। তিনি আমীর নির্বাচিত হবার পর থেকে তার বিরুদ্ধে ১৯৭১ সালে ফেনীতে সংঘটিত ঘটনায় তাকে সম্পৃক্ত করে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জড়ানোর ষড়যন্ত্র করছে সরকার। পত্রিকায় তার বিরুদ্ধে এক কাল্পনিক চিঠি ছাপানো হয়। আমীরে জামায়াত মকবুল আহমাদ স্বয়ং নিজে উক্ত চিঠির প্রতিবাদ জানিয়ে প্রদত্ত বিবৃতিতে বলেছেন, ‘ঐ চিঠি তার লেখা নয় এবং স্বাক্ষরও তার নয়।’ অথচ সরকার উক্ত চিঠির কথা উল্লেখ করে তাকে মামলায় জড়ানোর চেষ্টা করছে। দু’একটি অনলাইন পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে যে, মকবুল আহমাদের বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার।

তিনি বলেন, আমরা সরকারের এ জঘন্য ষড়যন্ত্রের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। আমরা স্পষ্টভাবে উল্লেখ করতে চাই আমীরে জামায়াতের বিরুদ্ধে এ ধরনের কোন ষড়যন্ত্র দেশবাসী মেনে নিবে না। তিনি সকল ষড়যন্ত্র বন্ধ করে অবিলম্বে আমীরে জামায়াত মকবুল আহমাদসহ জামায়াতের গ্রেফতারকৃত সকল নেতা-কর্মীর নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ