ঢাকা, শনিবার 21 October 2017, ৬ কার্তিক ১৪২8, ৩০ মহররম ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বৈরি আবহাওয়ায় শিমুলিয়া ঘাটে লঞ্চ ও সি-বোট চলাচল বন্ধ

লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) সংবাদদাতা : বৈরি আবহাওয়া বিরাজ করায় শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ি ও মাঝিকান্দি নৌ-রুটের লঞ্চ ও সি-বোট চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ, আর  ফেরি চলাচল করছে সীমিত পরিসরে। এদিকে শিমুলিয়া  ফেরি ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় ৪ শতাধিক যানবাহন। এদের মধ্যে পণ্যবাহী ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান ও ছোট গাড়ির সংখ্যাই বেশি। গতকাল শুক্রবার সরেজমিনে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের শিমুলিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায় বৈরি আবহাওয়ার কারণে সকাল থেকেই ভারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে এবং নদীতে রয়েছে প্রচুর ঢেউ। এদিকে টার্মিনালে প্রচুর সংখ্যক প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাসসহ অসংখ্য ছোট গাড়ি পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে এবং  ফেরি ঘাটের দু’পাশের রাস্তায় পণ্যবাহী ট্রাক ও কভার্ডভ্যান সারিবদ্ধভাবে পারাপারের জন্য প্রতিক্ষার প্রহর গুনছে। বি.আই.ডব্লিউটিএ ও বি.আই.ডব্লিউটিসি ও সূত্রে জানা যায়, ২ নম্বর সর্তকতা সংকেত বিরাজ করায় এ নৌ রুটের পদ্মা নদী উত্তাল রয়েছে এবং বাতাসের কারণে ড্রাম বা ঠেলা  ফেরি চলাচল করতে পারে না তাই  ফেরি চলাচল সীমিত করা হয়েছে এবং বন্ধ রয়েছে লঞ্চ ও সি-বোট চলাচল। কাগজে-কলমে  ফেরি কর্তৃপক্ষ ১০টি  ফেরি চলাচল দেখালেও চলাচল করছে খুবই অল্পসংখ্যক  ফেরি। ঘাট সূত্রে ও  ফেরিঘাট সংশ্লিষ্টরা জনান, এ নৌ চ্যানেলটি বর্তমানে পাড়ি দিতে দের ঘণ্টা থেকে ২ ঘণ্টা সময় লাগে, যার ফলে যানবাহনের জট লেগে যায় ঘাট এলাকায়। এ ব্যাপারে মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির টু আইসি এসআই মো. জামশেদ আলীর সাথে আলাপকালে তিনি জানান, শুক্রবার বিধায় ছোট গাড়ির চাপ একটু বেশি তাছাড়া নদী উত্তাল ও বৈরি আবহাওয়ার কারণে  ফেরিগুলোকে এ নৌ-পথ অত্যন্ত সর্তকতার সাথে পাড়ি দিতে হয় ফেরির মাস্টারদের। যার কারণে পূর্বের তুলনায়  ফেরি পারাপারে সময় বেশি লাগছে তাই ঘাটে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। তবে তিনি আরো জানান, আবহাওয়া অনুকূলে থাকলেও সবগুলো  ফেরি ঠিকঠাক মতো চলাচল করলে সন্ধ্যা ও রাতের দিকে গাড়ির সংখ্যা কমে যাবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ