ঢাকা, বুধবার 25 October 2017, ১০ কার্তিক ১৪২8, ৪ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আমার কাছে সবার আগে জাতীয় দল -তামিম

স্পোর্টস রিপোর্টার : ইনজুরিতে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শেষ হওয়ার আগেই সোমবার দেশে ফিরেছেন তামিম ইকবাল। আর গতকাল তিনি দেখা করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরীর সঙ্গে। আগামী ৪ নবেম্বর শুরু হতে যাওয়া বিপিএলের কয়েকটি ম্যাচ যে তিনি খেলতে পারবেন না, তা প্রায় নিশ্চিত। তবে তামিমের কাছে অবশ্য সবার আগে জাতীয় দলের দায়িত্ব। সম্পূর্ণ সুস্থ হয়েই বিপিএলে খেলার ইচ্ছা  দেশসেরা ওপেনারের। গতকাল মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদ মাধ্যমকে তামিম বলেন, ‘আগামী দুই সপ্তাহ রিহ্যাবে থাকতে হবে। এরপর আমার ইনজুরির অবস্থা দেখবেন চিকিৎসকরা।’ মাঠে ফিরতে কোনো রকম ঝুঁকি নিতে রাজি নন তামিম। তিনি বলেন, ‘আমার মেসেজটা পরিষ্কার, আমার কাছে সবার আগে জাতীয় দল। পুরোপুরি সুস্থ না হলে মনে হয় না বিপিএলে খেলা উচিত। আমি তা করবোও না। বিপিএল গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট, কিন্তু জাতীয় দলেরও খেলা আছে। জাতীয় দল আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। সামনে শ্রীলংকার সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ। যত ম্যাচই মিস হোক, পুরোপুরি সেরে না উঠলে বিপিএলে খেলতে নামবো না। কয়টা ম্যাচ মিস হবে, বলতে পারছি না। তবে এটা নিশ্চিত, প্রথম দুটো ম্যাচ মিস হবেই।’ দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজেও  হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ। দুঃসহ সফর নিয়ে তামিম বলেন, ‘আমরা নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারিনি। সফরটা ছিল ভীষণ কঠিন। তবে ভুল থেকেই মানুষ শিক্ষা  নেয়। আমাদের জন্য এটা শিক্ষণীয় সফর। আমি নিশ্চিত, আমাদের দলের ব্যাটসম্যান-বোলাররা এটা বুঝতে পেরেছে। এখনও দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ বাকি। আশা করি, বাকি দুই ম্যাচে ভালো করবে বাংলাদেশ।’ প্রোটিয়াদের মাটিতে ব্যর্থতা থেকে শিক্ষা নেয়ার পরামর্শ দিয়ে তামিম বলেন, ‘একটা খারাপ সফর  শেষে সব কিছু ভুলে গেলে উন্নতি হবে না। সফরে কী কী ভুল ছিল, তা খুঁজে বের করে কাজ করতে হবে। ২০১৯ বিশ্বকাপ ইংল্যান্ডের মাটিতে খেলতে হবে। ইংল্যান্ডের কন্ডিশনও কঠিন হবে আমাদের জন্য। তাই সব কিছু মাথায় রেখেই এগোতে হবে।’ কোচের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে তামিম প্রথম ওয়ানডে খেলেননি- এ নিয়ে ক্রিকেটাঙ্গনে কিছুটা গুঞ্জনও ছিল। তামিম অবশ্য এটাকে ‘হাস্যকর’ বলে উড়িয়ে দিলেন, ‘এরকম কিছু ঘটেনি। এ নিয়ে  বোর্ড চিঠিও পাঠিয়েছে মিডিয়ার কাছে। আমার কাছে ব্যাপারটা খুব হাস্যকর মনে হয়েছে। একটা ৫ পারসেন্ট  ঘটনাকে মানুষ ২৫-৩০ পারসেন্ট বানিয়ে ফেলেছে। কোচের সঙ্গে আমার কোনো সমস্যা নেই।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ