ঢাকা, বুধবার 25 October 2017, ১০ কার্তিক ১৪২8, ৪ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বাটির দাম ৩০০ কোটি

কথায় বলে, পুরনো চাল ভাতে বাড়ে। একটি প্রাচীন বাটি সেই প্রবাদটিকে আবার প্রমাণ করে দিল। সম্প্রতি চিনে সাদা ও নীল রঙের তৈরি একটি পোরসেলিন মানে চিনামাটির বাটির দাম নিলামে উঠেছে প্রায় ২০৯ কোটি টাকা। প্রত্নতত্ত্ববিদরা পরীক্ষা করে জানিয়েছেন, এই বাটিটির আনুমানিক বয়স প্রায় এক হাজার বছর। সংস্থার আয়োজন করেছে ব্রিটিশ নিলামকারী কোম্পানি ‘সদবি’। প্রথম দেখে প্রত্নতাত্ত্বিকরা বাটিটির একটি আনুমানিক বয়স নির্মাণ করেন, তারপর ভালো করে পরীক্ষা করে নিয়ে জানান, আনুমানিক ৯৬০-১১২৭ খ্রিস্টাব্দের মধ্যে বাটিটি তৈরি হয়েছিল, কেননা সেইসময় চিনে এই রকম বাটি ব্যবহারের প্রমাণ ইতিপূর্বেই গবেষকরা পেয়েছেন।
তবে এই বাটিটি নিয়ে বলতে গেলে প্রথমেই বলতে হয় তার দামের কথা। ইতিপূর্বে চিনে প্রত্নতাত্ত্বিক সামগ্রীর যা দাম ছিল, এই বাটিটি পূর্বের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, ২০১৪ সালে মিং যুগে তৈরি হওয়া একটি ওয়াইন কাপ নিলামে উঠেছিল, তার দাম তখন হয়েছিল প্রায় ৩ কোটি ৬০ লক্ষ ডলার। সাংহাইয়ের মিলিওনেয়ার লিউ ইকিয়ান সেটি কিনে নিয়েছিলেন নিজের ড্রয়িংরুমের শোভা বাড়ানোর জন্য। আর তার পাশাপাশি দুষ্প্রাপ্য শিল্পকর্ম সংগ্রহ ছিল তাঁর শখও।
এবারে যে-বাটিটিকে নিয়ে এত হইচই সেটি চিনের পুরাতন সংযুগের। প্রথমে নিলাম শুরু হয়েছিল ১ কোটি ২ লক্ষ ডলার থেকে। তারপর দামের পারদ ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী হতে থাকে। মাত্র মিনিট কুড়ি নিলাম হওয়ার পর ৩ কোটি ৭৭ লক্ষ ডলারে (ভারতীয় মুদ্রায় ৩০৯ কোটি টাকা প্রায়) কিনে নেন বাটিটি। তবে ওই ব্যক্তির পরিচয় সম্পর্কে কোনও সূত্র থেকে কোনও খবর পাওয়া যায়নি। নিলাম কোম্পানি সদবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, লেখার পর মূলত তুলিগুলো জলে ধুয়ে নেওয়ার জন্যই ওই বাটিটির ব্যবহার করা হতো। এবং সেটি কোনও ব্যক্তির সম্পত্তি নয়, রাজকীয় আদালতেই বাটিটি বিক্রি হতো।
প্রতœতাত্বিকদের মতে, এই ধরনের চিনেমাটির বাটি এমনিতে খুবই দুষ্প্রাপ্য। বাটিটির ব্যাস প্রায় ১২ সেন্টিমিটার। এবং এই বাটি নিলামে উঠে আজ পর্যন্ত নিলাম চড়া যাবতীয় পোরসেলিনের সামগ্রীর পূর্ব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। দেশটির প্রতœতাত্ত্বিক দপ্তরের দেওয়া সূত্র অনুসারে এখনও পর্যন্ত চিনের উত্তরভাগের রাজ আদালতে সংযুগে ব্যবহৃত চিনেমাটির তৈরি মাত্র চারটি সামগ্রী পাওয়া গিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ