ঢাকা, বুধবার 25 October 2017, ১০ কার্তিক ১৪২8, ৪ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কক্সবাজারে বড় ধরনের ডাকাতি রুখে দিলো মডেল থানা পুলিশ ॥ অস্ত্রসহ ৬ ডাকাত আটক

কক্সবাজার সংবাদদাতা: কক্সবাজার শহরতলীর সাংস্কৃতিক কেন্দ্র এলাকায় বড়ধরনের ডাকাতির ঘটনা রুখে দিয়েছে সদর মডেল থানা পুলিশ।
সুকৌশলে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে পুলিশ ৬ ডাকাতকে ধারালো অস্ত্রসহ হাতেনাতে আটক করতে সক্ষম হয়। রোববার ভোররাতে অভিযান চালিয়ে এমন ডাকাতির প্রস্তুতির ঘটনা ভ-ুল করে দেয় পুলিশ।
জানা গেছে, ২২ অক্টোবর ভোর রাত ৩টার দিকে সশস্ত্র ডাকাতদল বড়ধরনের ডাকাতি সংগঠিত করার লক্ষে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের পাশ্ববর্তী গলিতে প্রস্তুতি নিচ্ছিলো। গোপনভিত্তিতে সংবাদ পায় সদর মডেল থানা পুলিশ।
এরই প্রেক্ষিতে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রণজিত কুমার বড়–য়ার নেতৃত্বে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামরুল আজম, ইন্সপেক্টর মাইন উদ্দিন (অপারেশন) এসআই দীপক কুমার সিংহ, এসআই আবুবক্কর সিদ্দিক, এসআই শফিকুল ইসলাম, এসআই অহিদ মুরাদ, এসআই মশিউর, এএসআই হিমাংশু কুমার রায় আশীষ, এএসআই রাজীব বৈরাগী, এএসআই শামীমসহ একদল পুলিশ নিয়ে অভিযান শুরু করেন।
অভিযানে গ্রেফতারকৃতরা- কক্সবাজার সদরের ঝিলংজার দক্ষিণ হাজীপাড়ার মৃত আবুল হাশেমের ছেলে সোহেল (২৪), একই এলাকার ইদ্রিসের ছেলে মোঃ আরমান (২০), চট্টগ্রামের কর্ণফুলি থানার শিকলবাহা লালপুল এলাকার শামসুল আলম (২২) শহরের মোহাজেরপাড়া নুর আহাম্মদের ছেলে নুরুল ইসলাম (২৫), মহেশখালী দলিয়ারপাড়ার শামশুল আলমের ছেলে লোকমান হাকিম (২৬) ও লাইট হাউজপাড়ার মৃত আবদুল গফুরের ছেলে মো. হানিফ (৩৬) বলে জানা গেছে। এসময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে বেশকিছু ধারালো অস্ত্রসহ ডাকাতির সরাঞ্জামাধি উদ্ধার করে।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রণজিত কুমার বড়–য়া জানান, ধৃত ডাকাতরা কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের পাশের গলিতে ডাকাতির জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল। তাদের উদ্দেশ্য ছিল বড়ধরনের একটা ডাকাতির ঘটনা সংগঠিত করা।
তিনি জানান, এদের বিরুদ্ধে ডাকাতি, ছিনতাই, দস্যুতার অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে।
ধৃতদের বিরুদ্ধে ডাকাতির প্রস্তুতির অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ