ঢাকা, শনিবার 28 October 2017, ১৩ কার্তিক ১৪২8, ৭ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কেনেডি হত্যা বিষয়ক ২৮০০ মার্কিন নথি প্রকাশ

২৭ অক্টোবর, রয়টার্স : সাবেক প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডি হত্যাকাণ্ড বিষয়ক দুই হাজার ৮০০ গোপন নথি প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল আর্কাইভস। গত বৃহস্পতিবার বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নথিগুলো ‘ডিক্লাসিফায়েড’ করার নির্দেশ দেয়ার পরপরই সেগুলো উন্মুক্ত হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি।
এর আগেও কেনেডি হত্যা সংক্রান্ত বেশকিছু গোপন নথি প্রকাশিত হয়েছিল। ১৯৯২ সালে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ২৫ বছরের মধ্যে ওই হত্যাকাণ্ড সংশ্লিষ্ট ৫০ লাখ পৃষ্ঠার সব নথি উন্মুক্তের আইন করে। বৃহস্পতিবার ছিল ওই সময়সীমার শেষ দিন।
যদিও সব গোপন নথি প্রকাশিত হয়নি। জাতীয় নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে ট্রাম্প বেশকিছু সম্পাদিত নথি প্রকাশে নতুন করে আরও ছয় মাস সময় নিয়েছেন।
অনেকের আশঙ্কা, সিআইএ ও এফবিআইসহ গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর চাপের মুখে শেষ পর্যন্ত ওই নথিগুলো প্রকাশিত হবে না।
চুয়ান্ন বছর আগে ১৯৬৩ সালের ২২ নভেম্বর ডালাসে আততায়ীর গুলীতে নিহত হন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট কেনেডি। যে খোলা লিমুজিনে চড়া অবস্থায় কেনেডি গুলীবিদ্ধ হন, সে গাড়িতে ছিলেন টেক্সাসের তৎকালীন গভর্নর জন কনেলিও, গুলীতে তিনিও আহত হন। কাছাকাছি থাকা পুলিশ কর্মকর্তা জেডি ট্রিপিটও গুলীবিদ্ধ হয়ে মারা যান। পুলিশ পরে লি হার্ভি অসওয়াল্ড নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে তার বিরুদ্ধে কেনেডি ও ট্রিপিটকে হত্যার অভিযোগ আনে। দুইদিন পর ডালাস পুলিশ ডিপার্টমেন্টের বেইজমেন্টে লিকে স্থানীয় এক নাইটক্লাবের মালিক জ্যাক রুবি গুলী করে হত্যা করেন। আটক অবস্থাতেই লি হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছিলেন; বলেছিলেন, তাকে ছকে ফেলে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে।
হত্যাকাণ্ডর তদন্তে গঠিত ওয়ারেন কমিশন ১৯৬৪ সালে দেয়া প্রতিবেদনে বলে, টেক্সাসের স্কুল বুক ডিপোজিটরি ভবন থেকে লি প্রেসিডেন্টকে লক্ষ্য করে গুলী ছোড়ে। ১৯৫৯ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভ্রমণে যাওয়া সাবেক মেরিন সদস্য লি ১৯৬২ পর্যন্ত সেখানে ছিলেন বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়। কেনেডিকে গুলী করার দুই মাস আগেও স্বঘোষিত মার্কসবাদী লি মেক্সিকো সিটির রাশিয়ান ও কিউবা দূতাবাসে গিয়েছিলেন বলে ওয়ারেন কমিশনের দাবি। যদিও ‘স্থানীয় কিংবা আন্তর্জাতিক কোনো ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে লি অথবা রুবি এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন’ বলে প্রমাণ পাননি তারা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ