ঢাকা, শনিবার 28 October 2017, ১৩ কার্তিক ১৪২8, ৭ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

দাপুটে জয় দিয়ে টি-টোয়েন্টি শুরু পাকিস্তানের

বোলারদের নৈপুণ্যে শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজ দাপুটে জয় দিয়ে শুরু করলো পাকিস্তান। আবুধাবিতে গতরাতে সিরিজের প্রথম ম্যাচে লংকানদের ৭ উইকেটে হারিয়েছে পাকিস্তান। এর ফলে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল সরফরাজের দল। সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্বান্ত নেয় পাকিস্তান। নিজেদের বোলিং নৈপুণ্য দিয়ে শুরুতেই শ্রীলংকার ব্যাটসম্যানদের কোনঠাসা করে রাখে পাকিস্তানের বোলাররা। দলীয় ১ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে শ্রীলংকা। শেষ পর্যন্ত ৯ বল হাতে রেখে ১০২ রানেই গুটিয়ে যায় লংকানরা। দলের পক্ষে সবচেয়ে বেশি ২৩ রান করে করেন উইকেটরক্ষক সাদিরা সামারাউইকরামা ও সেক্কুজে প্রসন্ন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৮ রান আসে ওপেনার দানুষ্কা গুনাথিলাকার ব্যাট থেকে। পাকিস্তানের হাসান আলী ৩টি ও উসমান খান-মোহাম্মদ হাফিজ ২টি করে উইকেট নেন। জবাবে শুরুটা ভালো হয়নি পাকিস্তানের। ১৮ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। ওপেনার ফখর জামান ৬ ও বাবর আজম ১ রান করে ফিরেন। তৃতীয় উইকেটে ৪৬ রানের জুটি গড়ে শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে উঠেন আরেক ওপেনার আহমেদ শেহজাদ ও শোয়েব মালিক। ব্যক্তিগত ২২ রানে মালিক ফিরে গেলেও, পরবর্তীতে জয় পেতে অসুবিধা হয়নি পাকিস্তানের। হাফিজকে নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন মালিক। চতুর্থ উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ৩৯ রানের জুটি গড়েন মালিক ও হাফিজ। ৪টি চারে ৩১ বলে ৪২ রানে অপরাজিত থাকেন মালিক। ৩টি চারে ২৩ বলে অপরাজিত ২৫ রান করেন হাফিজ। শ্রীলংকার পেসার ভিকুম সঞ্জয়া ২ উইকেট নেন। ম্যাচের সেরা হয়েছেন পাকিস্তানের উসমান।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
শ্রীলংকা : ১০২/১০, ১৮.৩ ওভার (প্রসন্ন ২৩*, সামারাউইকরামা ২৩, হাসান ২৩/৩)।
পাকিস্তান : ১০৩/৩, ১৭.২ ওভার (মালিক ৪২*, হাফিজ ২৫, সঞ্জয়া ২/২০)।
ফল : পাকিস্তান ৭ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : উসমান আলী (পাকিস্তান)।
সিরিজ : তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল পাকিস্তান। ইন্টারনেট।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ