ঢাকা, শনিবার 28 October 2017, ১৩ কার্তিক ১৪২8, ৭ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপ ফুটবলে চুয়াডাঙ্গা জেলা চ্যাম্পিয়ান

এফ.এ আলমগীর, চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা গতকাল চুয়াডাঙ্গা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে সিরাজগঞ্জ জেলা দলকে ৬/১ গোলে পরাজিত করে স্বাগতিক চুয়াডাঙ্গা জেলা দল চ্যাম্পিয়ন হয়। খেলা শুরুর ৪ মিনিটের মাথায় চুয়াডাঙ্গা জেলা দলের পক্ষে নাইজেরিয়ান খেলোয়াড় শেখ রাসেলের স্ট্রাইকার দাওদা ১ম গোল করেন। ১৮ মিনিটের মাথায় আত্মঘাতী বলে সিরাজগঞ্জ জেলা দল ১ গোল করে খেলায় সমতা আনে। ২২ মিনিটের মাথায় আবারো চুয়াডাঙ্গা জেলা দলের ১১ নং জার্সিধারী দাওদা ২য় গোল করে। ২৯ মিনিটের মাথায় চুয়াডাঙ্গা জেলা দলের পক্ষে সোহেল আরো একটি গোল করে। ৩৪ মিনিটের সময় চুয়াডাঙ্গা জেলা দলের পক্ষে দাওদা ৩য় বল করে চুয়াডাঙ্গা জেলা দলের পক্ষে হ্যাট্রিক করেন। দ্বিতীয়ার্ধের ১৫ মিনিটে চুয়াডাঙ্গার পক্ষে জাতীয় দলের খেলোয়াড় ইসমাঈল বাঙ্গুরা ৫ম গোল করেন। দ্বিতীয়ার্ধের ২৯ মিনিটের মাথায় চুয়াডাঙ্গা জেলা দলের পক্ষে ৪র্থ বারের মত দাওদা ৬ষ্ঠ ও শেষ গোল করেন।
উভয় দলে ৫ জন করে বিদেশী খেলোয়াড়সহ জাতীয় পর্যায়ের খেলোয়াড়দের নিয়ে গঠিত দুই দলের টানটান উত্তেজনাপূর্ণ ফাইনালে গতকাল যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা রুখতে পুলিশ, ২ প্লাটুন বিজিবি, অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট টিম, আনসার ও রোভার স্কাউটস সদস্যদের নিয়ে ৫ স্তরের নিরাপত্তা বলয় দিয়ে নিñিদ্র নিরাপত্তার চাদরে মোড়ানো হয়। খেলা শেষে জাতীয় সংসদের হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার সেলুন প্রধান অতিথি থেকে ফাইনাল খেলার ট্রপি ও প্রাইজ মানি প্রদান করেন। এ ছাড়া বিগত দিনে চুয়াডাঙ্গায় ফুটবলে অবদান রাখা কৃতি খেলোয়াড়দের সম্মননা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক জিয়া উদ্দীন আহমেদসহ ক্রীড়ামোদী বিপুল সংখ্যক সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। খেলা শেষে চুয়াডাঙ্গা জেলা স্টেডিয়ামে মনোমুগ্ধকর আতশবাজীর অনুষ্ঠান দর্শকদের বিমোহিত করে। নব নির্মিত আধুনিক এ স্টেডিয়ামে প্রথম বারের মতো অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টে গতকাল সরাসরি ২০ হাজারেরও বেশী দর্শক উপভোগ করার সুযোগ পান। এর মধ্যে বিপুল সংখ্যক মহিলাদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্য করার মত। স্টেডিয়ামে দর্শক চাপ সামলাতে চুয়াডাঙ্গা ডিশ ক্যাবলে, চুয়াডাঙ্গা টাউনমাঠ, ভি.জে স্কুল (চাঁদমারি) মাঠ ও স্টেডিয়ামের বাইরে বড় পর্দায় সরাসরি খেলা দেখানো হয়। জেলার সর্বত্র টিভি সেটের সামনে মানুষের ভীড় থাকায় বাজারঘাট ছিল ফাঁকা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ