ঢাকা, রোববার 29 October 2017, ১৪ কার্তিক ১৪২8, ৮ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে মারপিটের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

বগুড়া অফিস ঃ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে রোগীর স্বজনদের মারপিটের ঘটনায় শনিবার ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী  ৩দিনের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে শজিমেক হাসপাতালে জয়পুরহাট থেকে চিকিৎসার জন্য আসা রাহেলা বেওয়ার (৭৫) চিকিৎসাকে কেন্দ্র করে মারপিটের ঘটনা ঘটে। রাহেলা বেওয়ার ছেলে গাজীউর রহমান ও নাতি রুম্মান হোসেন শান্ত তাদের উপর হামলা ও মারপিটের অভিযোগ আনেন ইন্টার্ণ চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে। অন্যদিকে চিকিৎসকরা উল্টো তাদের উপর হামলার অভিযোগ আনেন।ওই ঘটনার পর শুক্রবার রাহেলা বেওয়াকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়ার পর বাড়ী ফেরার পথে রাস্তায় মারা যান।  বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. নির্মলেন্দু চৌধুরী জানান, ওই ঘটনার প্রেক্ষিতে শনিবার তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির প্রধান হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডা. কামরুল আহসান। সদস্যরা হলেন মেডিসিন বিভাগের রেজিষ্ট্রার ডা. মমতাজুল ইসলাম ও ওয়ার্ড মাষ্টার (ইনচার্জ) তবিবুর রহমান। তাদেরকে আগামী ৩ কার্যদিবসের মধ্যে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ণ চিকিৎসকদের সভাপতি ডা.আসিফ জানান, রোগীর স্বজনরা যখন মহিলা ইন্টার্ন চিকিৎসককে অশ্লীল ভাষায় কথা বলে এবং অন্য চিকিৎসকদের একটি রুমে আটকে রেখে হামলা করে তখন হাসপাতালে অবস্থানরত অন্যান্য রোগীর স্বজনরা তাদের মারপিট করে। তবে, জয়পুরহাট সদর হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে ফিরে যাওয়া আহত রুম্মান হোসেন শান্ত জানিয়েছেন, ইন্টার্ণ চিকিৎসকরা বিনা অপরাধে তাদের রুমে আটকে রেখে মারপিট করেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ