ঢাকা, বুধবার 1 November 2017, ১৭ কার্তিক ১৪২8, ১১ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

প্রয়োজনীয় কিছু অ্যাপের ব্যবহার

জাফর ইকবাল : প্রযুক্তির উৎকর্ষতার কারণে এখন অনেক কিছুই আমাদের হাতে নাগালে। আমরা চাইলেই নিজের আবেগ অনুভূতি অন্যের সাথে শেয়ার করতে পারি। যেমন হোয়াটসঅ্যাপে নিজের অবস্থান শেয়ার করা, গুগল ফটোজে ব্যক্তিগত ছবি গোপন রাখা, ওয়াই-ফাই সংযোগে নতুন ত্রুটি গুলো জানা, হারিয়ে যাওয়া ‘গুগল কন্টাক্টস’ ফিরে পাওয়া, পাসওয়ার্ড শেয়ার ছাড়াই অন্যের জিমেইলে প্রবেশ করা। নীচে এসব অ্যাপগুলো নিয়েই আজকের আলোচনা।
হোয়াটসঅ্যাপে লাইভ শেয়ার : হোয়াটসঅ্যাপ সম্প্রতি তাদের অ্যাপে একটি নতুন সেবা যুক্ত করেছে। এর মাধ্যমে এখন থেকে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা অন্যদের সঙ্গে নিজের অবস্থান লাইভ শেয়ার করতে পারবে। লাইভ অবস্থান শেয়ার নামের এই ফিচারটিতে অ্যাপ থেকে সহজেই প্রবেশ করা যাবে। তবে এখনই এই নতুন ফিচারটি বিশ্বব্যাপী সব ব্যবহারকারীর জন্য উন্মুক্ত করা হয়নি। এটি ক্রমান্বয়ে বিভিন্ন দেশে উন্মুক্ত করা হবে। হোয়াটসঅ্যাপ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে নতুন ফিচারটি অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস  উভয় প্ল্যাটফর্মে ব্যবহার করা যাবে।
ফিচারটি ব্যবহার করার পদ্ধতি হচ্ছে অ্যান্ড্রুয়েড বা আইওএসে হোয়াটসঅ্যাপ ওপেন করতে হবে। এরপর টাইপিং স্পেস বারে সংযুক্তি আইকন চাপুন। অবস্থান ফিচারটি ট্যাপ করুন। পরে লাইভ অবস্থান শেয়ার অপশনে চাপুন এবং টাইম ফ্রেম সেট করুন, যে সময়ে অন্য কোনও ব্যক্তি চ্যাটে বা গ্রুপ চ্যাটে  আপনাকে ট্র্যাক করতে পারবে। সময় সেট করার জন্য ১৫ মিনিট, ১ ঘণ্টা, ৮ ঘণ্টা এই তিনটি অপশন পাবেন। এই এনক্রিপ্ট করা ফিচারটি কাদের সঙ্গে এবং কত সময় ধরে আপনার অবস্থান শেয়ার করতে চান তা নিয়ন্ত্রণ করারও সুযোগ করে দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। আপনি যেকোনও সময়ে অবস্থান শেয়ার করা বন্ধ করতে পারবেন বা লাইভ অবস্থান টাইমারটি মেয়াদ উত্তীর্ণ বলে শো করতে পারবেন।
গুগল ফটোজে ছবি গোপন রাখা : গুগল ফটোজছবি সংরক্ষণের ক্ষেত্রে গুগল ফটোজ বেশ জনপ্রিয়। এটা স্মার্টফোনের স্টোরেজ ক্ষমতা অক্ষুন্ন রাখে। এছাড়া সব ছবি একসঙ্গে রাখার ক্ষেত্রেও জুড়ি নেই গুগল ফটোজের। তবে অনেকে কিছু ব্যক্তিগত ছবি বা ভিডিও সবার সামনে উন্মোচন করতে চান না। যে কারণে সেগুলো গোপন রাখার প্রয়োজন দেখা দেয়। ব্যক্তিগত ছবি অন্য সব ছবি থেকে আলাদা রাখার সুযোগ গুগল ফটোজে রয়েছে। এই সুবিধা ব্যবহারের মাধ্যমে যে কেউ তাদের ব্যক্তিগত ছবি গোপন রাখতে পারবেন। এজন্য গুগল ফটোজের আর্কাইভ ফিচারটি ব্যবহার করতে হবে। ছবি বা ভিডিও গোপন রাখতে প্রথমেই গুগল ফটোজ ওপেন করুন। তারপর সেখান থেকে যে ছবি বা ভিডিওটি গোপন করতে চান সেটা নির্বাচন করতে হবে।
নির্বাচনের পর ওপরের ডান পাশের কোণে তিনটি ডট চিহ্নিত অপশনে গেলে আর্কাইভ অপশনটি পাবেন। এক্ষেত্রে আর্কাইভ সিলেক্ট করলেই আপনার ব্যক্তিগত ছবি বা ভিডিও অন্যগুলো থেকে আলাদা হয়ে যাবে। পরবর্তীতে যেকোনও সময় আর্কাইভে গেলে গোপন করা ছবি দেখতে পাবেন। অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস এবং ওয়েব ব্যবহারকারীদের জন্য গুগল ফটোজের এই আর্কাইভ সুবিধা রয়েছে। তবে সুবিধাটি উপভোগ করতে হলে গুগল ফটোজের ২ দশমিক ১৫ ভার্সনটি প্রয়োজন হবে।
অন্যের জিমেইলে প্রবেশ : জিমেইলজিমেইলের ডেলিগেটেডস ফিচারের মাধ্যমে পাসওয়ার্ডটি প্রকাশ না করেই আপনার অ্যাকাউন্টে অন্যকে প্রবেশের অনুমতি দিতে পারেন। আপনি আপনার নিয়মিত অ্যাকাউন্টে এ ধরনের ১০ জন প্রতিনিধি এবং একটি স্কুল বা কাজের অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে ২৫ জন পর্যন্ত প্রতিনিধি যোগ করতে পারবেন। আপনার নির্বাচিত প্রতিনিধিরা আপনার জিমেইল অ্যাকাউন্টের বার্তা পড়তে পারবে, বার্তা পাঠাতে পারবে এবং এমনকি মুছেও ফেলতে পারবে। যখন কোনও প্রতিনিধির মাধ্যমে একটি ই-মেইল পাঠানো হবে তখন তাদের মেইল ঠিকানাটি বার্তাতেও উপস্থিত হবে। তারা আপনার জিমেইল পরিচিতিগুলি পরিচালনা করতে পারে। তবে তারা আপনার জিমেইল সেটিংস, পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে পারবে না বা আপনার হয়ে কারও সঙ্গে চ্যাট করতে পারবে না।
জিমেইল প্রতিনিধি যোগ করবেন যেভাবে : জিমেইলের অ্যাকাউন্ট এবং ইম্পোর্ট> সেটিংসে যান। আপনার অ্যাকাউন্টে প্রবেশাধিকার দেওয়ার জন্য গ্রান্ট একক্সেস’র অধীনে থাকা অন্য অ্যাকাউন্ট জুড়ুন-এ ক্লিক করুন। নির্বাচিত প্রতিনিধিদের দিয়ে পড়ানো বার্তাটি পড়া বা না পড়া হিসাবে চিহ্নিত করা হবে কিনা তা নির্বাচন করুন। অনুরোধ জানানো হলে আপনার অ্যাকাউন্টে প্রবেশাধিকার দেওয়ার জন্য আপনি যে ব্যক্তির ই-মেইল ঠিকানাটি সরবরাহ করতে চান তা লিখুন। নিশ্চিত করুন যে আপনি প্রবেশাধিকার শেয়ার করতে চান। আপনার অনুরোধ পাঠানো প্রতিনিধির ই-মেইল প্রাপ্তির সাত দিনের মধ্যে  ই-মেইল থাকা একটি লিংকে ক্লিক করতে হবে। অথবা অফারের মেয়াদ সাতদিন পর শেষ হয়ে যাবে। আপনি অ্যাকাউন্টের আমদানি (ইম্পোর্ট) অপশনে ফিরে গিয়ে আপনার অনুরোধটি গ্রহণ করেছেন কিনা তা জানতে পারবেন। এটিকে চালু করার জন্য আপনার ৩০ মিনিট সময় লাগবে এবং তারপর প্রতিনিধি আপনার পক্ষ থেকে ই-মেইল দেখতে এবং পাঠাতে পারেন। আপনি যদি আপনার জিমেইল অ্যাকাউন্ট থেকে কোনও প্রতিনিধিকে সরিয়ে দিতে চান তাহলে <অ্যাকাউন্ট> ইম্পোর্ট সেটিংসে যান। আপনার অ্যাকাউন্টে প্রবেশাধিকারের জন্য গ্র্যান্ট একসেসের অধীনে আপনি যে ই-মেইল অ্যাকাউন্টটি সরাতে চান সেটি মুছে ফেলতে ক্লিক করুন।
২৮০ শব্দে টুইট : টুইটের শব্দ সীমা বাড়লো ১৪০ শব্দে টুইট করা গেলেও ব্যবহারকারীরা এখন থেকে ২৮০ শব্দে টুইট করতে পারবেন। টুইটার সম্প্রতি পরীক্ষামূলকভাবে এই সুবিধাটি চালু করেছে। গ্রাহকরা যেন মনের ভাব আরও ভালোভাবে প্রকাশ করতে পারেন, সেজন্যই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। টুইটার এক ব্লগ পোস্টে জানায়, অনেক ব্যবহারকারীর একমাত্র অভিযোগ ছিল ১৪০ শব্দের সীমাবদ্ধতা। অবশেষে তাদের সেই অভিযোগ বিবেচনা করে নতুন শব্দ সংখ্যা নির্ধারণ করা হলো। এতে গ্রাহকরা সাইটটি ব্যবহারে আগের চেয়ে বেশি আগ্রহী হবেন। অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যবহারকারী সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়লেও টুইটারের চিত্র ভিন্ন। এর গ্রাহক বৃদ্ধির হার খুবই কম। ফলে নতুনদের আকৃষ্ট করতে নিজেদের কৌশল কিছুটা পরিবর্তন করলো তারা। টুইটারের এ পরিবর্তন সম্পর্কে প্রতিষ্ঠানটির পণ্য ব্যবস্থাপক আলিজা রোজেন বলেন, আপনাদের চিন্তা-ভাবনাকে একটি টুইটের মাধ্যমে প্রকাশ করার ব্যবস্থা করছি। আমরা একেবারে সেই ব্যবস্থার কাছাকাছি
হারিয়ে যাওয়া ‘গুগল কন্টাক্টস’ ফিরে পাওয়া : গুগল কন্টাক্টসস্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের বেশিরভাগই তাদের প্রয়োজনীয় ফোন নম্বরগুলো গুগল কন্টাক্টসে সেভ করে রাখেন। মূলত এগুলো যেন কখনও না হারায় সেজন্য এই ব্যবস্থা। তারপরও অনেক সময় ভুলক্রমে গুগল কন্টাক্টসে থাকা সব নম্বর ডিলিট হয়ে যেতে পারে। এ অবস্থায় নম্বরগুলো ফিরিয়ে আনতে যা করতে হবে- ১. আপনার ব্রাউজারে নতুন একটি গুগল কন্টাক্টস ওয়েবসাইট ওপেন করুন। এ পর্যায়ে আপনার কন্টাক্টসে যে জি-মেইল আইডি ব্যবহার করা হয়েছিল, সেটাতে লগইন করতে হবে। ২. লগইন করার পর বাম পাশে থাকা ‘মোর’ নামে একটি অপশনে ক্লিক করতে হবে। এরপর রিস্টোর কন্টাক্টস অপশন আসবে। সেখানে ক্লিক করতে হবে। ৩. এ পর্যায়ে আপনি কতদিনের মধ্যে রিস্টোর চান সে সম্পর্কিত একটি অপশন আসবে। এটা নির্বাচন করে নিশ্চিত করলেই আপনি হারিয়ে যাওয়া নম্বরগুলো ফিরে পেতে শুরু করবেন। সর্বোচ্চ ৩০ দিনের মধ্যে আপনি এগুলো পেয়ে যাবেন।
ওয়াই-ফাই সংযোগে ত্রুটি : ওয়াইফাইয়ে সাবধানওয়াই-ফাই সংযোগের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী হ্যাকিংয়ের শিকার হতে পারেন। সম্প্রতি ওয়াই-ফাই সংযোগে নতুন ধরনের নিরাপত্তা ত্রুটি খুঁজে পেয়ে সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বেলজিয়ান গবেষক ম্যাথি ভেনহওয়েফ। ওয়াই-ফাই সংযোগে যে ধরনের নিরাপত্তা ত্রুটি ভেনহওয়েফ খুঁজে পেয়েছেন তার নাম - কি রিইনস্টলেশন অ্যাটাক। এটাকে সংক্ষেপে ক্র্যাক নামেও ডাকা হয়। ক্র্যাক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে একজন হ্যাকার ওয়াই-ফাই ব্যবহারকারীর সিগন্যাল ভাঙতে সক্ষম হন। যার মাধ্যমে শেষ পর্যন্ত ব্যবহারকারীর সব ধরনের তথ্যও চুরি করতে পারে হ্যাকাররা।
এ সম্পর্কে ম্যাথি ভেনহওয়েফ বলেন, সাইবার অপরাধীরা এই প্রক্রিয়ায় যে কারও তথ্য চুরি করতে পারে। এর মাধ্যমে অত্যন্ত সংবেদনশীল তথ্য যেমন, ক্রেডিট কার্ড নাম্বার, পাসওয়ার্ড, চ্যাট মেসেজ, ই-মেইল ইত্যাদি চুরি হতে পারে। বেলজিয়ান এ গবেষক কয়েকটি ঝুঁকিপূর্ণ অপারেটিং সিস্টেমের কথা বলেছেন যেগুলোতে এ ধরনের আক্রমণ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এর মধ্যে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড, লিনাক্স, ম্যাক-ওস, মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, মিডিয়াটেক এবং ওপেন বিএসডি। এগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ও লিনাক্স।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ