ঢাকা, বৃহস্পতিবার 2 November 2017, ১৮ কার্তিক ১৪২8, ১২ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

উলিপুরে ছিনতাই ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে নারী নির্যাতন মামলা

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা : কুড়িগ্রামের উলিপুরে জমা-জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় হামলা ও পথ রোধ করে মোবাইল ফোনসহ ৮০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। পরে ছিনতাই এ ঘটনাটি আড়াল করতে শিশু ও নারী নির্যাতনের মিত্যা মামলা দায়ের করেছে বলে জানাগেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বাকরেরহাট বাজারে।
জানাগেছে, উপজেলার দক্ষিণ দলদলিয়া সরবদি গ্রামের মৃত: নাজির উদ্দিনের পুত্র ও বড় মহিষমুড়ি দাখিল মাদ্রসার সুগার মাওলানা আঃ হামিদ এর সাথে একই গ্রামের ঘাটিয়াল পাড়ার লাল মিয়া ও তার স্ত্রী গোলেনুর বেগমের দীর্ঘদিন থেকে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ ও মামলা চলে আসছে। এমতাবস্থায় ঘটনার দিন গত ১৬ অক্টোবর কুড়িগ্রামে উলিপুর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে উক্ত বিরোধপূর্ণ জমির ১০৭ ধারায় মামলার সাক্ষী শোনানি শেষে আদালত ভবনের সামনে অতর্কিতে উত্তেজিত হয়ে বিবাদী লাল মিয়ার লোকজন বাদী আঃ হামিদের লোকজনের উপর হামলা চালায়। এ সময় বাদী পক্ষের মুহরী চাঁদ মিয়াসহ উপস্থিত লোকজন এগিয়ে এসে তাদেরকে উদ্ধার করে। এতেও ক্ষান্ত হয়নি তারা। সে দিন বাড়ী ফিরে বিকেল ৪ টায় উলিপুর উপজেলার বাকরেরহাট বাজারে ওৎপেতে থাকা গোলেনূর ও তার স্বামী এবং সহযোগীদের কবলে পরে। সেখানে বিবাদী পক্ষ আবারো আক্রমন চালিয়ে আঃ হামিদের ছোট ভাই আঃ বারির পটেকে থাকা ব্যবসার ৮০ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে উভয় পক্ষেরই ৪ জন আহত হয়। এদিকে প্রতিপক্ষেকে ঘায়েল ও ছিনতাইয়ের এ ঘটনাটি অন্যভাবে প্রভাবিত করতে ঘটনার ৪ দিন পর গোলেনূর বেগম বাদী হয়ে আঃ হামিদ ও তার ছোট ভাই আঃ বারিসহ ৪জনকে আসামী করে কুড়িগ্রাম জজ আদালতে শিশু ও নারী নির্যাতনের একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। মামলাটি বর্তমান ওসি উলিপুর এর তদন্তাধীনে রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ