ঢাকা, শুক্রবার 3 November 2017, ১৯ কার্তিক ১৪২8, ১৩ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নাটোরের খবর

নাটোর সংবাদদাতা: চাঁদা না দেয়ায় নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার জোনাইল ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আবুল আছর মোহাম্মদ শফিউজ্জামানকে মারপিটের প্রতিবাদে এবং অবিলম্বে দোষীদের আটকের দাবীতে মানববন্ধন করেছে কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। সোমবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত কলেজের সামনে বড়াইগ্রাম-চাটমোহর সড়কেএ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনকালে অধ্যক্ষ আবুল আছর মোহাম্মদ শফিউজ্জামান, উপাধ্যক্ষ এসএম রাজিবুল করিম, সহকারী অধ্যাপক জালাল উদ্দিন, সোহেল সামাদ, মোস্তফা কামাল, প্রভাষক আতিকুর রহমান ও শিক্ষার্থী নীল চাঁদ বক্তব্য রাখেন। এ সময় বক্তারা গত শনিবার জোনাইল বাজারে অধ্যক্ষকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে আহত করার প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে দোষী জাহাঙ্গীর আলমসহ অন্যান্যদের আটকের দাবী জানান। অন্যথায় কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি দেয়ার আহ্বান জানান। 

জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে মতবিনিময়

নাটোরে জলবায়ু পরিবর্তনের তহবিল ব্যবহারে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা এবং সাংবাদিকদের ভূমিকা শীর্ষক এক মত বিনিময় সভা করেছে সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)। রোববার বিকেলে সনাক মিলনায়তনে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে আয়োজিত এই মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন নাটোর জেলা সনাকের সভাপতি রেজাউল করিম রেজা এবং প্রধান বক্তারা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সনাকের সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার মোছাঃ ফজিলা খাতুন। সভায় পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোর কারণে ক্ষতিগ্রস্থ উয়নশীল দেশের জন্য অনুদান বৃদ্ধি সহ বিভিন্ন কার্যকরী ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা করা হয়। একই সাথে পরিবেশ উন্নয়নে বিভিন্ন সরকারি ও আধা সরকারি সংস্থার প্রাপ্ত টাকা যাতে পরিবেশ উন্নয়নের কাজেই স্বচ্ছভাবে ব্যয় করা হয় সে ব্যাপারে উপস্থিত সকলকেই একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে দায়িত্ব পালনের আহবান জানানো হয়। একই সাথে আগামী নভেম্বরে জার্মানের বন এ অনুষ্ঠিতব্য কনফারেন্স অব পার্টিজ (কপ-২৩) সম্মেলনে এই পৃথিবীকে বাসযোগ্য করে রাখতে উন্নত দেশগুলোকে বিশেষ ভূমিকা রাখার ব্যাপারে অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ সরকার এবং দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সংগঠনগুলোকে আরও বেশী করে চাপ দেয়ারও অনুরোধ করা হয়। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের বক্তব্য রাখেন, নাটোর জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ মাহফুজ আলাম মুনী, রনেন রায়, পরিতোষ অধিকারী, হালিম খান, মাহবুব হোসেন, ইসাহাক আলী ও রফিকুল ইসলাম নান্টু।  

সংবাদ সম্মেলন

নাটোরে পৌরসভার সাথে কোন রকম সমন্বয় না করেই সড়ক ও জনপথ বিভাগ শহরের ভিতর দিয়ে যাওয়া প্রায় ছয় কিলোমিটার রাস্তা প্রশস্ত করণের কাজ শুরু করে দেয়ার প্রতিবাদে পৌরসভা সংবাদ সম্মেলন করে তার প্রতিবাদ জানিয়েছে। পৌর মেয়র তার বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত নাটোর শহরের প্রধান সড়ক প্রশস্ত করণের কাজটি নাটোরবাসীর দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবী। এই দাবী পূরণের লক্ষ্যে ইতোমধ্যেই সড়ক ও জনপথ বিভাগ প্রায় ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে দীর্ঘ ছয় কিলোমিটার এই সড়কটি প্রশস্ত করণের ব্যাপারে নাটোর পৌরসভার সাথে কোন রকম সমন্বয় করে নাই এমন কি বার বার তাগিদ দেয়ার পরেও তারা সে দিকে ভ্রক্ষেপ না করেই কাজ শুরু করে দ্রুতই চালিয়ে যাচ্ছে। শহরের বর্তমান রাস্তাকে মোট ৪৮ ফুট রাস্তায় প্রশস্ত করে তৈরি করার সময় তারা পৌরসভার পানির পাইপ লাইন, বিদ্যুৎ উন্নয়নর বোর্ড এবং টিএনটি বিভাগের খুঁটি ও তার না সরিয়ে বা সরানোর কোন ব্যবস্থা না রেখেই তারা কাজ করে যাচ্ছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ তাদের এই কাজে রাস্তার ধারে ফুটপাতের নীচে পানি নিস্কাসনের যে ড্রেন করছে তা পৌরসভার বর্তমান চালু থাকা সব ড্রেনগুলোর চেয়ে বেশ খানিকটা উঁচু। তাতে করে সড়ক ও জনপথ বিভাগের নতুন ওই ড্রেনের সাথে পৌরসভার বর্তমান ড্রেনের সংযোগ করা হলে পানি উল্টো বড় ড্রেনে না গিয়ে পানি ছোট পাইপ দিয়ে আরো পৌরসভার ভিতরেই চলে আসবে। এছাড়াও পৌরবাসীর জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহের পাইপ লাইনটি রাস্তার ভিতরে চলে যাওয়ায় পরে সেখান থেকে নতুন সংযোগ দেয়া এবং পাইপে কোন ত্রুটি দেখা দিলে তা মেরামত করা অসম্ভব হয়ে পড়বে। এমনকি শহরের চামড়া পট্টি থেকে হকার্স মার্কেট পর্যন্ত আড়াই কিলোমিটার রাস্তার ধারে পাইপ লাইন বসানোর মতো কোন জায়গাও রাখা হয়নি। এসব বিষয় তুলে ধরে সড়ক ও জনপথ বিভাগকে চিঠি দেয়া হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ