ঢাকা, শনিবার 4 November 2017, ২০ কার্তিক ১৪২8, ১৪ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বর্ণাঢ্য আয়োজনে খুলনায় সাতদিনব্যাপী আয়কর মেলার উদ্বোধন

খুলনা অফিস: ‘সুখী স্বদেশ গড়তে ভাই, আয়করের বিকল্প নাই’ ‘সমৃদ্ধির সোনালী দিন, আনতে হলে আয়কর দিন’-এরকম  নজরকাড়া সব স্লোগানকে সামনে রেখে গতকাল বুধবার সকালে খুলনায় শুরু হলো সাতদিনব্যাপী বিভাগীয় আয়কর মেলা। কর অঞ্চল, খুলনা কর্তৃক বয়রাস্থ কর ভবন প্রাঙ্গণে আয়োজিত এ মেলার উদ্বোধন করেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান।
মেলার উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সংসদ সদস্য বলেন, জাতীয় জীবনে সর্বত্র একটি রাজস্ব বান্ধব সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠা এবং করদাতা বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে বর্তমান সরকার নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কতৃক আয়কর মেলা আয়োজন তেমনই একটি উদ্যোগ। খুলনা কর অঞ্চলে আয়োজিত এই সাত দিনব্যাপী বিভাগীয় আয়কর মেলায় সম্মানিত করদাতাগণ একই ছাদের নিচে থেকে কর সেবার সকল সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন, এটা খুলনাবাসীর জন্য একটি অনন্য পাওয়া। আমরা খুলনাবাসী গর্বিত যে খুলনাঞ্চল সমগ্র বাংলাদেশের মধ্যে কর প্রদানে সবচেয়ে এগিয়ে আছে। একসময় পিছিয়ে পড়ে থাকা বঞ্চিত খুলনা আজ আলোকিত আর সম্ভাবনাময় খুলনায় পরিণত হয়েছে কেবলমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আর দূরদর্শিতার কারণে।  খুলনাকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এই বিশেষ  দৃষ্টির প্রতি খুলনাবাসীর কৃতজ্ঞতা স্বরুপ সবাইকে কর প্রদানে এগিয়ে আসতে হবে।  প্রধানমন্ত্রী ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার যে স্বপ্ন দেখেছেন তার সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে দেশের সামগ্রিক কল্যাণের জন্য আমাদের সবাইকে স্ব প্রণোদিত হয়ে কর প্রদান করতে হবে।
কর অঞ্চল খুলনার কর কমিশনার মো. ইকবাল হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই উদ্বোধীন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন মংলা কাস্টম হাউস, খুলনার কমিশনার মারগূব আহমদ, কর আপীল অঞ্চল, খুলনার কর কমিশনার প্রশান্ত কুমার রায়, খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি কাজি আমিনুল হক এবং খুলনা কর আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট মো. লুৎফর রহমান। স্বাগত বক্তৃতা করেন কর অঞ্চল খুলনার যুগ্ম কর কমিশনার গণেশ চন্দ্র মন্ডল।
উল্লেখ্য, বায়রাস্থ কর ভবন প্রাঙ্গণে আয়োজিত এ আয়কর মেলা শেষ হবে আগামী ৭ নবেম্বর। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মেলা চলবে। মেলায় টিআইএন রেজিস্ট্রেশন, রি-রেজিস্ট্রেশন, নতুন করদাতাদের টিআইএন প্রদান, আয়কর রিটার্ন পূরণে সহযোগিতা, আয়কর রিটার্ন দাখিল, ব্যাংক বুথে আয়কর প্রদানসহ বিভিন্ন করসেবা পাওয়া যাবে। মেলায় মুক্তিযোদ্ধা, মহিলা এবং প্রতিবন্ধী করদাতাদের জন্য পৃথক বুথের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ