ঢাকা, শনিবার 4 November 2017, ২০ কার্তিক ১৪২8, ১৪ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মাদারগঞ্জে বিয়ের জাল রেজিস্ট্রিকারী কাজী গ্রেফতার

জামালপুর সংবাদদাতা : জামালপুরের মেলান্দহের জনৈক সোহেল রানা (২৮)’র বিয়ে জাল রেজিস্ট্রারকারী কাজী আবুল হাশেম(৫০) গ্রেপ্তার হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত কাজী মাদারগঞ্জ উপজেলার ভেলামারী গ্রামের রাজমাউনের ছেলে বলে জানা গেছে।
জানা গেছে, ২০১২ সালে মেলান্দহ উপজেলার ঝাউগড়া গ্রামের আনিসুর রহমানের ছেলে সোহেল রানা (২৭) পার্শ্ববর্তী মাদারগঞ্জের ভেলামারী গ্রামের দুলাল উদ্দিনের মেয়ে জুলেখা (২৪) কে বিয়ে করেন। বিয়ের পর সোহেল রানা ঢাকায় একটি মুরগির খামারী ব্যবসা করেন। সোহেল রানা ২লাখ ৭০ হাজার টাকা শ্বশুর দুলালের কাছে গচ্ছিত রাখেন। শ্বশুর কর্তৃক সেই টাকা আত্মসাতের ঘটনায় শ্বশুর-জামাতার মধ্যে মনোমালিন্য চলছিল। প্রায় এক বছর আগে শ্বশুর সোহেল রানার পাওনার ৪৫ হাজার টাকা প্রদান করে বাকি ১লাখ ২৫ হাজার টাকা পরিশোধের প্রতিশ্রুতি দেন।
দিতীয় সন্তান প্রসবের সময় সোহেলর স্ত্রী জুলেখাকে পিত্রালয়ে নিয়ে যান। এরপর শ্বশুর তার প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে মেয়ে জুলেখাকে আটকে রাখেন। এই শেষ নয়, দুলালের মেয়ে-জামাতার বিয়ের রেজিষ্ট্রি আমূল পরিবর্তন করে এবং কাবিন নামায় এক লাখ টাকার স্থলে দুই লাখ টাকা লেখায় । এরপর শ্বশুর উল্টো মেয়ের কাবিনের দুই লাখ টাকা দাবি করে মামলার হুমকি দেয়। এ নিয়ে কয়েক দফা গ্রাম্য দেনদরবার হয়।  সুরাহা নাহওয়ায় বিষয়টি অবশেষে আদালত পর্যন্ত গড়ায়। আদালতে একই বিয়ের পাল্টাপাল্টি  দুই ধরণের কাবিন নামা উপস্থান করা হয়। বিজ্ঞ আদালত বিয়ের জাল রেজিস্ট্রিকারী কাজী আবুল হাশেমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারী করেন। পুলিশের বিশেষ অভিযানে কাজী আবুল হাশেমকে গ্রেপ্তার করে কোর্টে চালান দিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ