ঢাকা, শনিবার 4 November 2017, ২০ কার্তিক ১৪২8, ১৪ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বাংলাদেশে নতুন করে জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় অস্ট্রেলিয়া

 

স্টাফ রিপোর্টার : নতুন করে জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় অস্ট্রেলিয়া সরকার বাংলাদেশে তাদের নাগরিকদের চলাফেরায় সতর্কতা জারি করেছে। তবে ঠিক কী ধরনের তথ্যের ভিত্তিতে অস্ট্রেলিয়া তাদের নাগরিকদের এই সতর্কবার্তা দিয়েছে তা স্পষ্ট করেনি তারা। 

অস্ট্রেলিয়ার বৈদেশিক সম্পর্ক ও বাণিজ্য বিষয়ক দফতরের (ডিএফএটি) ওয়েবসাইটে গতকাল শুক্রবার বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সন্ত্রাসী হামলার ‘বড় ধরনের হুমকিতে’ রয়েছে।  যে অস্ট্রেলীয় নাগরিকরা এখন বাংলাদেশে আছেন, তাদের সতর্ক থাকতে হবে এবং চারপাশের পরিবেশের দিকে  খেয়াল রাখতে হবে। সেই সঙ্গে নিতে হবে নিজেদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা। আর যারা বাংলাদেশ ভ্রমণের পরিকল্পনা করছেন, তাদের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করার কথা বলা হয়েছে ওই ট্রাভেল অ্যাডভাইজরিতে।  

ঠিক কী ধরনের তথ্যের ভিত্তিতে অস্ট্রেলিয়া তাদের নাগরিকদের এই সতর্কবার্তা দিয়েছে, তা স্পষ্ট করেনি ডিএফএটি। তবে তারা আশংকা করছেন, যে কোন সময় ঘটে যেতে পারে দুর্ঘটনা। আততায়ীরা পশ্চিমা দেশের নাগরিকদের টার্গেট করতে পারে। অতএব, একান্ত যদি বাংলাদেশে যেতেই হয়, তবে আপনার অবস্থানকালীন নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন। সম্ভব হলে ভ্রমণের পরিকল্পনা বাতিল করুন। 

সতর্কবার্তায় তারা গতবছর ১ জুলাই ঢাকার হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলা এবং গত মার্চে শাহজালাল (রা.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সামনে চেকপোস্টে আত্মঘাতী বিস্ফোরণের বিষয়টিও উল্লেখ করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এখনও উচ্চ সতর্কতা বজায় রেখেছে এবং নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে প্রায়ই সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের ঘটনা ঘটছে। নতুন করে জঙ্গি হামলার ঝুঁকি রয়ে গেছে ‘আগের মতোই’। 

 যেসব বিপণি বিতানে নিয়মিত বিদেশিদের যাতায়াত আছে, সেসব এলাকায় বাংলাদেশে অবস্থানরত অস্ট্রেলীয় কর্মকর্তাদের না যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। মোটর গাড়ি ছাড়া তাদের বাইরে চলাফেরা না করতে বলেছে দেশটির পররাষ্ট্র দফতর। 

জঙ্গি হামলার হুমকির বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর পুলিশের সহকারী মহাপরিদর্শক (মিডিয়া) সহেলী ফেরদৌস বলেন, বিশ্বজুড়েই জঙ্গিরা তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশও আশঙ্কামুক্ত নয়। তিনি বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ এ বিষয়ে যথেষ্ট তৎপর রয়েছে; জঙ্গি দমনে এরই মধ্যে বেশ সাফল্য দেখিয়েছে। বিভিন্ন দেশের সঙ্গে সমন্বয় করে এ বিষয়ে আমরা কাজ করছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ