ঢাকা, রোববার 5 November 2017, ২১ কার্তিক ১৪২8, ১৫ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

তাড়াশে কৃষি তথ্যসেবা কেন্দ্র যেন কৃষি ক্লিনিক

শাহজাহান তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ): তাড়াশে কৃষি তথ্যসেবা কেন্দ্রগুলো যেন কৃষি ক্লিনিক। সচেতনতা সৃষ্টি ও কৃষি তথ্যসেবা কৃষকদের দোর গোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষে চালু করা হয়েছে কৃষি তথ্য সেবাকেন্দ্র । কৃষকেরা নানা রকম ফসল ও শাক-সবজী চাষ করে লাভবান হওয়ার আশায়। কিন্তু তার সে ফসল যখন পোকামাকড় ও নানা রোগ ব্যাধিতে আক্রান্ত হয় তখন তারা হতাশ হয়ে পড়ে। অসচেতনতার কারনে অনেকেই কৃষিবিদদের পরামর্শ ছাড়াই হাতুড়ে পরামর্শক দ্বারা ফসলের চিকিৎসা করানোতে ফলন বিপর্যয়ে পরে থাকে। কৃষকদের এসকল সমস্যা দূর করার লক্ষ্যে তাড়াশ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাইফুল ইসলাম ২০১৭ সালের শুরুতে তাড়াশের আটটি ইউনিয়নকে ২৪টি ব্লকে ভাগ করে কৃষি তথ্য সেবাকেন্দ্র চালু করেছেন। প্রতিটি সেবা কেন্দ্রে কৃষি অফিসের নির্দিষ্ট কৃষিবিদ কর্মকর্তাগন সপ্তাহে দুই দিন করে বসে কৃষকদের নানা রকম সমস্যার  কথা শুনে তাদের সঠিক পরামর্শ ও ফসলের চিকিৎসা দিয়ে থাকেন। দেখে মনে হয় এযেন সত্যই কৃষি ক্লিনিক। সরেজমিনে মালশিন ব্লকের কৃষি তথ্যসেবা কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, আরশেদ আলী সোনা পাতিল গ্রাম থেকে এসেছেন তার কলাগাছের বানসিটপ ও লাউ গাছের গোড়া পোঁচা এবং ফল নষ্ট হওয়া রোগের চিকিৎসা নেওয়ার জন্য। উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শামছুল হক তাকে কলাগাছের জন্য দানাদার কার্বোটাফ ৩-জি এবং লাঊ গাছের জন্য পটাস উপরি প্রয়োগ ও ছত্রাক নাশক স্টিল বা স্কোর ব্যাবহারের পরামর্শ দেন। মালশিন গ্রামের রায়হান ধানের পাতা মোড়ানো, ব্লাস্ট ও মাজড়া পোকার জন্য আসলে তাকে নাইট্রো, ট্রুপার, এডিফেন ও আওয়াল ব্যাবহারের পরামর্শ দেওয়া হয়। ভাদাস গ্রামের কৃষক আজহার আলী জানান, কৃষি তথ্যসেবা কেন্দ্র চালু হওয়ার কারনে আমাদের সচেতনতা সৃষ্টি হচ্ছে এবং চাষাবাদের  ক্ষেত্রে সঠিক পরামর্শ পাচ্ছি। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাইফুল ইসলাম জানান, তথ্য সেবাকেন্দ্র চালুর ফলে কৃষকেরা খুব কাছে থেকে কৃষি সেবা পাচ্ছে। এছাড়া ডিলারদের প্রশিক্ষণ দিয়েছি এতে কৃষকেরা সেখান থেকেও সেবা নিতে পারছে। ১০টি এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন এবং কৃষকের জানালা ও কৃষকের ডিজিটাল ঠিকানা নামের দু’টি অ্যাপসের মাধ্যমে কৃষি তথ্য সেবাকেন্দ্র থেকে কৃষকদের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান ও সচেতনতা সৃষ্টি করে যাচ্ছি। কৃষকদের সুবিদার্থে কোন ব্লকে কে কখন সেবা দিবে সে তথ্য সংবলিত একটি চার্ট উপজেলা চত্বরে দিয়েছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ