ঢাকা, রোববার 5 November 2017, ২১ কার্তিক ১৪২8, ১৫ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বিএনপি একটা  এলোমেলো  পার্টি -ওবায়দুল কাদের

 

চট্টগ্রাম অফিস : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি আগামী নির্বাচনে যদি না আসে, তাহলে তাদের অস্তিত্ব হারিয়ে যাবে। বিএনপি মুসলিম লীগের মতো সংকুচিত হয়ে যাবে। গতকাল শনিবার দুপুরে চট্টগ্রামের মরহুম আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর স্মরণসভায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

 আনোয়ারা উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল মান্নান এর সভাপতিত্বে ও আনোয়ারা ও কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক ও হায়দার আলী রনির সঞ্চালনায় স্মরণসভায় আরও বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, মরহুম আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর সন্তান সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন পটিয়ার সাংসদ শামসুল হক চৌধুরী, সাতকানিয়ার সাংসদ আবু রেজা নদভী, চন্দনাইশের সাংসদ নজরুল ইসলাম চৌধুরী, আনোয়ারা উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী, কর্ণফুলী উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক চৌধুরী, কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ছৈয়দ জামাল আহমদ, চট্টগ্রাম দক্ষিণ আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি আ.ম.ম টিপু সুলতান চৌধুরী সহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার হাইলধর ইউনিয়নে বশরুজ্জামান উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে অনুষ্ঠিত স্মরণসভায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি অবশ্যই নির্বাচনে যাবে-বিএনপি নেতা মওদুদ আহমেদের এমন বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, যাবে-এটা কি মওদুদের মনের কথা নাকি বিএনপির মনের কথা? আমি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবের কাছে জানতে চাই।  কারণ বিএনপির মুখে এক কথা, মনে আরেক কথা। বিএনপির আন্দোলনের সামর্থ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলে দলটির নেতাদের এলোমেলো বক্তব্য নিয়েও কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি একটা এলোমেলো পার্টি। তাদের বুদ্ধিজজীবী জাফরুল্লাহ চৌধুরীরাই বলেন, বিএনপি মাজাভাঙা, বিশৃঙ্খল দল। এই দলের একেক নেতা একেক সময় একেক রকম বক্তব্য দেয়। গত সপ্তাহে খালেদা জিয়ার গাড়িবহর ফেনী অতিক্রমের সময় বাসে অগ্নিসংযোগের জন্য বিএনপির সহযোগী সংগঠন শ্রমিক দলকে দায়ী করেন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ওবায়দুল কাদের বলেন, বিশ্বমিডিয়ায় দেখানোর জন্য পরিকল্পিতভাবে বিএনপি ফেনীতে সাংবাদিকদের ওপর হামলা করেছে।

তিনি বলেন, বিএনপির থলের বিড়াল বের হয়ে গেছে। রাস্তাায় এখন আর বিএনপির জন্য ঢল নামে না।  খালেদা জিয়ার বের হবার কথা সকাল ৯টায় থাকলেও ঘুম থেকে উঠতে না পারায় তিনি ১২টার আগে বের হতে পারেন না। 

আখতারুজ্জামান বাবুর স্মৃতিচারণ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশে জাতীয় সমস্যা যখন আসত, তখন বাবু ভাই এগিয়ে আসতেন।  দলের বিপদে-আপদে সবসময় বাবু ভাই সবার সামনে থাকতেন।  জাতীয় নির্বাচন এলে অনেক প্রার্থীকে তিনি গোপনে টাকা দিতেন। কিন্তু কখনোই তিনি প্রকাশ করেননি।

এসময় ওবায়দুল কাদের উপস্থিত জনতার কাছে আগামী নির্বাচনে বাবুর সন্তান সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদকে মনোনয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে বলবেন কি না জানতে চান।  

সভায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ বলেন, যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিশ্বাস করে না, তাদের এদেশে ক্ষমতায় আসার আর কোনো সুযোগ নেই। যারা ১৫ আগস্ট, ৩ নভেম্বর পালন করে না, তারা বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে বিশ্বাস করে না। 

আনোয়ারা উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল মান্নান এর সভাপতিত্বে ও আনোয়ারা ও কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক ও হায়দার আলী রনির সঞ্চালনায় স্মরণসভায় আরও বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, মরহুম আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর সন্তান সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান প্রমুখ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন পটিয়ার এমপি শামসুল হক চৌধুরী, সাতকানিয়ার এমপি আবু রেজা নদভী, চন্দনাইশের এমপি নজরুল ইসলাম চৌধুরী, আনোয়ারা উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী, কর্ণফুলী উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক চৌধুরী, কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ছৈয়দ জামাল আহমদ, চট্টগ্রাম দক্ষিণ আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি আ.ম.ম টিপু সুলতান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক পার্থ সারথি চৌধুরীসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ