ঢাকা, সোমবার 13 November 2017, ২৯ কার্তিক ১৪২8, ২৩ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

লেবাননে হামলা হলে ইসরাইলে হাজার হাজার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের আশঙ্কা

 

১২ নবেম্বর, রায় আল ইউম : লেবাননে হামলা হলে ইসরাইলের দিকে হাজার হাজার  ক্ষেপণাস্ত্র ছুটবে বলে ধারণা সামরিক বিশেষজ্ঞদের। আরবভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রায় আল ইউম এর এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি আরব ও লেবাননে যুদ্ধের আশঙ্কা ছড়ালেও সম্ভাব্য যুদ্ধের পরিণতি নিয়ে ভাবছে ইসরাইলও। ইসরাইলি নিরাপত্তা সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি জানায়, ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর কমান্ডারদের আশঙ্কা, যুদ্ধ শুরু হলে লেবানন থেকে ইসরাইলের দিকে প্রতিদিন হাজার হাজার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হতে পারে। ইসরাইলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এভিগড়োর লিবারম্যান বলেন, হিজবুল্লাহ একটি বিশাল সেনাবাহিনীর মতো। যাদের সামর্থ্য ন্যাটোর কোনও কোনও সদস্য দেশ থেকেও শক্তিশালী। ইসরাইলি যুদ্ধবিমানগুলো আকাশসীমা লঙ্ঘন করে সব সময় দক্ষিণ লেবাননে টহল দিলেও হিজবুল্লাহ তার সামরিক শক্তি বাড়াচ্ছে বলে মন্তব্য দেশটির সামরিক বিশেষজ্ঞদের। এদিকে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিরতার সুযোগে সুন্নি মুসলিমদের নেতৃত্ব কুক্ষিগত করার কৌশল নিয়ে এগোচ্ছে ইসরাইল। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে শিয়াপন্থী ইরান ব্লকের বিরুদ্ধে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন উপসাগরীয় দেশগুলোকে সমর্থন দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। সম্প্রতি ফাঁস হওয়া এক কূটনৈতিক তারবার্তায় (কেবল) এমন পরিকল্পনার কথা উঠে এসেছে বলে জানায় সংবাদমাধ্যমটি। মধ্যপ্রাচ্যে চলমান উত্তেজনায় ইন্ধনের ক্ষেত্রে সৌদি আরব ও ইসরাইলের গোপন আঁতাত রয়েছে এমন গুঞ্জন ছিলো আগে থেকেই। এবার ফাঁস হওয়া কূটনৈতিক তারবার্তায়ও তার আলামত মিলেছে। তারবার্তায় দেখা যায়, ইসরাইল বিভিন্ন দেশে তার দূতাবাসগুলোকে সৌদি আরবকে সমর্থন এবং লেবাননকে অস্থিতিশীল করতে দেশটির অব্যাহত প্রচেষ্টার পক্ষে লবিং জোরদারের নির্দেশনা দিয়েছে। ইসরাইলি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রেরিত এই তারবার্তা ফাঁস করেছে দেশটির চ্যানল-১০ নিউজ। এতে জোর দিয়ে বলা হয়, ইরান এবং হিজবুল্লাহর যৌথ কার্যক্রম এই ‘অঞ্চলের জন্য ধ্বংসাত্মক।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ