ঢাকা, শনিবার 18 November 2017, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২8, ২৮ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

হৃদরোগ ও বিবাহ বহির্ভূত যৌনতা: নতুন গবেষণা ফলাফল

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:যৌনতার কারণেও হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার মতো ঘটনা ঘটে থাকে। আর এই ঝুঁকিতে বেশি আছেন পুরুষরা। তবে আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন এর মতে সেক্সের সময় কার্ডিয়াক অ্যারেস্টের মতো ঘটনা বেশ দুর্লভ।

গবেষণা অনুযায়ী, একশ পুরুষের মধ্যে একজনের যৌন কার্যের সময় কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হতে পারে। এই হিসাব নারীদের ক্ষেত্রে অনেক কম, একজন নারীর ক্ষেত্রে এমনটা হতে পারে এক হাজারে।

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের সম্মেলনে প্রকাশিত আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলোজির একটি জার্নালে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

তবে একটি ভয়ংকর তথ্য জানিয়েছেন গবেষণাটির গবেষক এবং লস অ্যঞ্জেলেসের সেডারস-সিনাই হার্ট ইন্সটিটিউটের কার্ডিওলোজিস্ট সুমিত চু। যৌন কার্যের সময় কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট সচরাচর না হলেও, তার মতে, হয়ে গেলে কিন্তু রক্ষা নেই। এ ধরণের রোগীকে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বাঁচানো সম্ভব হয় না বলে জানিয়েছেন তিনি।

চু’র মতে ইলেক্ট্রিক্যাল ম্যালফাংশনের জন্য যখন হৃদপিণ্ডের স্পন্দন থেমে যায় তখনই কার্ডিয়াক অ্যারেস্টের মতো ঘটনা ঘটে। এতে বেশিরভাগ রোগীই মৃত্যুবরণ করে।বিষয়টি হার্ট অ্যাটাকের থেকে কিছুটা আলাদা। তবে যাদের আগে থেকেই হার্টের সমস্যা আছে কিংবা হার্ট অ্যাটাক হয়েছে তাদের এই ঝুঁকি বেশি।

চু পোর্টল্যান্ডে বেশ কয়েক বছর ধরে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়া ৪,৫৫৭ জন রোগীর উপর জরিপ চালিয়েছেন। দেখা গেছে, তাদের মধ্যে মাত্র ৩৪ জন যৌন কার্যের সময় অথবা এর এক ঘণ্টার মধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন। যারা এই বিশেষ সময়ে আক্রান্ত হয়েছেন তাদের দুই তৃতীয়াংশকেই বাঁচানো যায়নি।

গবেষণায় আরও জানা গেছে, যৌন কার্যের সময় যারা কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের ৭৫ শতাংশই বিবাহ বহির্ভূত যৌন কার্যে লিপ্ত ছিলেন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এসব পুরুষের সঙ্গী বেশ কম বয়সী নারী ছিলেন এবং যৌন কার্যের আগে তারা মদ্যপান করেছিলেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এসব পুরুষ তাৎক্ষণিক চিকিৎসা পান না। তাদের সঙ্গীরা ইমার্জেন্সি নম্বরে ফোন করে সহায়তা না চাওয়ার কারণে চিকিৎসা করতে অনেক দেরি হয়ে যায়। তাই এদের মাঝে মাত্র ১২ শতাংশ মানুষ সুস্থ হয়ে ফিরতে পারেন।

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের মতে, মানুষের জন্যই সেক্স নিরাপদ। এমনকি হার্টের অসুখ যাদের আছে তাদের ক্ষেত্রেও নিরাপদ। তবে তাদের চিকিৎসকের পরামর্শে থাকতে বলা হয়েছে এবং নিয়মিত শারীরিক ব্যায়াম করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। -চ্যানেল আই

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ