ঢাকা, শনিবার 18 November 2017, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২8, ২৮ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আন্দোলনের মাধ্যমে সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন আদায় করা হবে

এসএম মনিরুজ্জামান, টাঙ্গাইল সংবাদদাতা : বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন আমাদের দেয়া প্রস্তাব অনুযায়ী সহায়ক সরকারের অধীনেই হতে হবে। যাতে সকল দলের অংশগ্রহণে একটি সুষ্ঠু, সুন্দর এবং গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হয়। অন্যথায় নেতাকর্মীদের নিয়ে আন্দোলনের মাধ্যমে সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন আদায় করা হবে। এজন্যে সকল নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার নির্দেশ নিয়েছেন তিনি।
তিনি গতকাল শুক্রবার দুপুরে টাঙ্গাইলের সন্তোষে মজলুম জননেতা মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৪১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মাজার জিয়ারত শেষে এসব কথা বলেন।
এসময় তিনি আরো বলেন, আমরা দেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে জুলুমবাজ সরকারকে সরিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে চাই। আগামী দিনে যে নির্বাচন আসছে সেই নির্বাচনে সত্যিকার অর্থে যেন সকলের ভোটাধিকারকে নিশ্চিত করে জনগণের সরকার গঠন করতে পারি তারজন্য সবরকমের আন্দোলন, সংগ্রাম করতে হবে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া খুব স্পষ্ট করে বলেছেন একটি সহায়ক সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই। আমরা এমন একটি নির্বাচন চাই যেখানে সকল রাজনৈতিক দলের সমান অধিকার থাকবে। এবং আজকে যে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে  দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ও বিএনপি নেতৃবৃন্দকে সবখানে তাদেরকে দূরে রেখে নির্বাচন করা হবে, সে নির্বাচন কখনও সফল হবে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আমাদের ভোটের অধিকারের জন্যে, বেঁচে থাকার অধিকারের জন্য, গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আমরা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে নির্বাচন করবো, যে নির্বাচনে সকলে অংশগ্রহণ করতে পারে।     
এর আগে তিনি ভাসানীর মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এ সময় তার সাথে ছিলেন কেন্দ্রীয় নেতা শামসুজ্জামান দুদু, কেন্দ্রীয় যুবদলের সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুসহ টাঙ্গাইল জেলার নেতৃবৃন্দ।
এদিকে দিবসটি উপলক্ষে প্রতি বছরের মত এবারও মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। সকালে মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি প্রফেসর ড. আলাউদ্দিন মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্যদিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু করেন। এরপর ভাসানীর পরিবারের পক্ষ থেকে ফুলের শ্রদ্ধা জানানো হয়। পরে জেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, কৃষক শ্রমিক জনতালীগ, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ভাসানীর মাজারে পুস্পস্তবক অর্পণ করে। এছাড়াও ভাসানীর মুরিদানসহ বিভিন্ন সংগঠন নানা কর্মসূচি পালন করছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ