ঢাকা, সোমবার 4 December 2017, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চুয়াডাঙ্গায় আধুনিক পদ্ধতিতে টমেটোর আবাদ জনপ্রিয় হচ্ছে

চুয়াডাঙ্গা (সদর) সংবাদদাতা: চুয়াডাঙ্গায় এবার আধুনিক পদ্ধতিতে শুরু হয়েছে শীতকালীন হাইব্রীড টমেটোর আবাদ। বাঁশের খুঁটি আর নাইলন দঁড়ি ব্যবহার করা হচ্ছে এবার টমেটো ক্ষেতে। এতে করে বাড়তি কিছু খরচ বাড়লে ও পরিচর্যা ও টমেটো তুলতে অনেক সুবিধা হবে এবং সেগুলো ভাল দামে বিক্রি করতে পারবে কৃষকরা। ইতোমধ্যে টমেটো গাছে ফুল আসা শুরু হয়েছে। অনেক গাছে গুটি গুটি টমেটোও ধরেছে।
চুয়াডাঙ্গা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এবার চুয়াডাঙ্গা জেলায় টমেটোর আবাদ হয়েছে ১০৪ হেক্টর জমিতে। এরমধ্যে আলমডাঙ্গা উপজেলায় ২০ হেক্টর, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় ৩০ হেক্টর,দামুড়হুদা উপজেলায় ৪৪ হেক্টর ও জীবননগর উপজেলায় ১০হেক্টর জমিতে।
টমেটো আবাদকারী চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বোয়ালমারী গ্রামের  মরহুম জেহের মন্ডলের ছেলে আজিম জানান, প্রতিবছর তিনি এই টমেটোর আবাদ করে থাকে, চলতি বছরে সে ঢাকা থেকে এই চাষের উপর প্রশিক্ষণ নিয়ে এসেছে। তিনি এবার ২৫ কাঠা জমিতে হাইব্রিড জাতের টমেটোর আবাদ করেছে। প্রশিক্ষণ মত পরিচর্যা করছে। গাছ ভালো ও গাছে ফুল আসার সময় হয়েছে, কয়েক দিনের মধ্যে ফুল দেখা যাবে।
এখন সে টমেটো গাছের সঙ্গে বাঁশের কাবারি মাটিতে পুঁতে নাইলন দঁড়ি দিয়ে মাচা তৈরী করছে। এতে তার ক্ষেতের গাছ খাড়া হয়ে থাকবে গাছের পরিচর্যা করা সুবিধা হবে যথেষ্ট আলো বাতাস পাবে। এতে করে ফলন বাড়বে। ফল মাটিতে ঠেকবে না এতে টমেটোর রঙ ভালো হবে।
এ পর্যন্ত  তার খরচ হয়েছে ১২ হাজার টাকার মত। আর টমেটো ক্ষেত থেকে তোলা পর্যন্ত আরো থেকে ১০ হাজার টাকা খরচ হবে। সর্বমোট তার ২০ থেকে ২২হাজার টাকা খরচ হবে। ফলন ভালো হলে ভালো বাজার দর পেলে সে ২৫ কাঠা জমিতে ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকার টমেটো বিক্রি করতে পারবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ