ঢাকা, সোমবার 4 December 2017, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

যথাযোগ্য মর্যাদায় পবিত্র পবিত্র সিরাতুন্নবী (সা.) পালিত

স্টাফ রিপোর্টার : যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্বীর্যের মধ্য দিয়ে গত শনিবার পালিত হয়েছে পবিত্র পবিত্র সিরাতুন্নবী (সা.)। বিশ্বমানবতার মুক্তির দূত হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর জন্মদিন উৎসাহ উদ্দীপনা ও তাঁর জীবনী আলোচনার মধ্যদিয়ে পালন করেছে মুসলিম বিশ্ব। আলোচনা অনুষ্ঠান, ইবাদাত বন্দেগী, দোয়া দুরুদ ও ওয়াজ মাহফিলের মাধ্যমে মুহাম্মদ (সাঃ) কে স্মরণ করেছে উম্মতে মোহাম্মাদী। এ উপলক্ষে রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান এবং বিভিন্ন সংগঠনের প্রধানগণ পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন। ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে সংবাদপত্রে বিশেষ নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে, বিটিভি ও বাংলাদেশ বেতারসহ ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালা প্রচার করেছে। সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ দৈনিক পত্রিকা সমূহে ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে শনিবার বিশেষ ছুটি পালিত হয়েছে। ফলে গতকাল রোববার কোন পত্রিকা প্রকাশিত হয়নি।
আজ থেকে ১৪শ ৪৭ বছর আগে ৫৭০ খৃষ্টাব্দে ১২ রবিউল আউয়াল সুবহে সাদেকের সময় মক্কা নগরীর সম্ভ্রান্ত কুরাইশ বংশে মা আমেনার গর্ভে জন্মগ্রহণ করেন বিশ্ব শান্তির দূত হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)। পিতা মাতাকে হারিয়ে এতিম অবস্থায় চাচা আবু তালিবের আশ্রয়ে বড় হন তিনি। চল্লিশ বছর বয়সে নবুয়ত লাভের পর শুরু করেন মানুষকে সত্য সুন্দর ও শান্তির পথ প্রদর্শনের আন্দোলন। অনেক বাধা বিপত্তি পেরিয়ে তিনি এ আন্দোলনে সফল হন। প্রতিষ্ঠা করেন সাম্য শান্তির অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র মদীনাতুল মুনাওয়ারা। তিনিই সর্বপ্রথম মদীনা সনদ নামে শান্তিময় রাষ্ট্রের লিখিত সংবিধান প্রণয়ন করেন। যা আজো বিশ্বের প্রথম সংবিধান হিসেবে স্বীকৃত ও সম্মানিত।
পবিত্র সিরাতুন্নবী (সা.) উপলক্ষে বিভিন্ন সংগঠন আলোচনা সভার আয়োজন করেছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্নস্থানে জশনে জুলুস র‌্যালী বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেছে। সর্ববৃহৎ জসনে জুলুস বের হয় চট্টগ্রামে। বিপুল ধর্মপ্রাণ মুসল্লির অংশগ্রহণে জুলুসে নেতৃত্ব দেন দরবারে সিরিকোট শরীফের আল্লামা সৈয়দ মুহাম্মদ তাহের শাহ (মা.জি.আ)। জুলুসটি সকালে চট্টগ্রামের আনজুমানে আহমাদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদরাসা থেকে বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক ঘুরে মাদরাসা মাঠে গিয়ে মুসলিম উন্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয়।
এছাড়াও বিভিন্ন সংগঠন আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী পালন করেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ