ঢাকা, রোববার 10 December 2017, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সাতক্ষীরায় গ্রেফতার আতঙ্ক ৪৮ ঘণ্টায় আটক ১৩১ জন

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা : সাতক্ষীরায় আবারও গ্রেফতার আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। নতুন মামলা দায়েরের হিড়িক পড়েছে। গত এক মাসে জেলার বিভিন্ন থানাতে অর্ধশতাধিক নতুন মামলা রজু করা হয়েছে। এসব মামলায় বিএনপি-জামায়াতের শীর্ষ নেতাসহ শতাধিক নেতাকর্মীকে আসামী করা হয়েছে। শ্যামনগর-কালিগঞ্জ আসানের সাবেক এমপি কাজী আলাউদ্দীন, জামায়াতের সাতক্ষীরা জেলা আমীর মুহাদ্দিস রবিউল বাশার, সেক্রেটারি নুরুল হুদাসহ শীর্ষ নেতাদের এসব মামলায় আসামী করা হয়েছে। বিএনপি ও জামায়াতের একাধিক নেতাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, আগামী নির্বাচনে সম্ভব্য প্রার্থী ও নির্বাচন পরিচালনা করতে পারে এমন জনপ্রিয় নেতা-কর্মীদের নামে মামলা দায়ের করা হচ্ছে। সাতক্ষীরার নবাগত পুলিশ মোঃ সাজ্জাদুর রহমান সাংবাদিকদের জানিয়েছে, কোন সাধারণ মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে পুলিশ গুরুত্ব দেবে।
গত দুদিনে জেলাতে অভিযান চালিয়ে ১৩১ জনকে আটক করা হয়েছে। বৃহষ্পতিবার সকাল থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত পুলিশের হিসাব মতে বিভিন্ন থানাতে আটকের সংখ্যা ১৩১ জন। এর মধ্যে বিএনপি জামায়াতের ২৬ জন। জামায়াতের ১৬ ও বিএপির ১০ কর্মী রয়েছে বলে দলীয় সূত্র জানায়।
 শুক্রবার থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত জেলার আটটি থানার বিভিন্ন স্থান থেকে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ৬২ জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে সাতক্ষীরা সদর থানা থেকে ২৩ জন, কলারোয়া থানা ৯ জন, তালা থানা ৪ জন, কালিগঞ্জ থানা ৮ জন, শ্যামনগর থানা ১০ জন, আশাশুনি থানা ৩ জন, দেবহাটা থানা ২ জন, পাটকেলঘাটা থানা থেকে ৩ জনকে আটক করেছে।
সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী পুলিশের বিশেষ অভিযানে। বৃহস্পতিবার থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত জেলা বিভিন্ন এলাকা থেকে বিএনপি-জামায়াতের ১২ নেতাকর্মীসহ  ৬৯ জনকে আটক করা হয়।
আটককৃতদের মধ্যে সাতক্ষীরা সদর থানা থেকে ২৫ জন, কলারোয়া থানা ৮ জন, তালা থানা ৪ জন, কালিগঞ্জ থানা ৬ জন, শ্যামনগর থানা ১৩ জন, আশাশুনি থানা ৪ জন, দেবহাটা থানা ৫, পাটকেলঘাটা থানা থেকে ৩ জনকে আটক করেছে।
সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মিজানুর রহমান তাদের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে নাশকতা ও মাদকসহ বিভিন্ন অভিযোগে মামলা রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ