ঢাকা, রোববার 10 December 2017, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চুয়াডাঙ্গার জীবননগরের বিক্রি করা সেই সরকারি গাছ অবশেষে জব্দ

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা :  দৈনিক সংগ্রামে প্রকাশিত গত ৬ ডিসেম্বর চুয়াডাঙ্গার-জীবননগর মহাসড়কের মনোহরপুরে প্রায় সাড়ে তিন লক্ষাধিক টাকা মূল্যের তিনটি বড় গাছ পানির দরে বিক্রি করার সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেলিম রেজা নির্দেশ দেন। তিনি গাছ ৩টি জব্দ করে দর্শনা ডাকবাংলোতে সরকারি হেফাজতে পাঠিয়েছে।
উল্লেখ্য যে, জীবননগর-চুয়াডাঙ্গা সড়কের মনোহরপুর বাঁকে প্রায়শঃ দুর্ঘটনায় প্রাণহানীর ঘটনা ঘটে থাকে। এ অবস্থায় মারাত্মক ওই বাঁক সোজা করার জন্য রাস্তা প্রশস্ত করার কারণে ১টি শিশুগাছ, ১টি মেহগনি ও ১টি রেইনট্রি গাছ অপসারণের দরকার হয়। সংশ্লিষ্ট বিভাগ সার্ভে করে ওই ৩টি গাছের মূল্য নির্ধারণ করে মাত্র ৫৫ হাজার ৫৭৯ টাকা ৩৯ পয়সা। নিলাম কর্তৃপক্ষ সর্বোচ্চ ৬০ হাজার টাকা মূল্য নিয়ে তার সাথে ৫ শতাংশ ভ্যাট যোগ করে সর্বমোট ৬৫ হাজার ৪শ টাকায় বিক্রি করে। স্থানীয় এলাকাবাসীর ধারণা ওই তিনটি গাছের প্রকৃত মূল্য সাড়ে ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা। যে সকল ব্যক্তি গাছের মূল্য সার্ভে করেছিলো তারা সঠিক দাম আড়াল করে নামমাত্র মূল্য দেখিয়ে সরকারকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। এ বিষয়ে গত ৬ ডিসেম্বর দৈনিক সংগ্রামে নিউজটি প্রকাশিত হয়। পরে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদের নিদের্শে কর্তিত উক্ত গাছ জব্দ করে সরকারী হেফাজতে রাখা হয়েছে বলে জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেলিম রেজা নিশ্চিত করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ