ঢাকা, মঙ্গলবার 12 December 2017, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জিয়া পরিবারকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহার দাবি বিএনপির স্থায়ী কমিটির

স্টাফ রিপোর্টার : জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে বিদেশে অর্থপাচারের অভিযোগ এনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে বিএনপির স্থায়ী কমিটি। রোববার রাতে বিএনপির চেয়ারপার্সনের গুলশানের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ দাবি জানানো হয়। গতকাল সোমবার দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বৈঠকে দলটির শীর্ষ নেতারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে বিদেশে অর্থপাচার করে বিনিয়োগের যে অভিযোগ এনেছেন তা মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। বিএনপি এই বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়ে তা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছে। অন্যথায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য যথাক্রমে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, তরিকুল ইসলাম, লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর,আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।
সভায় সম্প্রতি আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে বিদেশে সম্পদ পাচার করে বিনিয়োগের যে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট অভিযোগ আনয়ন করেছেন সেটির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে এই বক্তব্য প্রত্যাহারের আহবান জানানো হয়। অন্যথায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সম্প্রতি সারাদেশে বিনা অজুহাতে বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে এবং মিথ্যা মামলা দায়ের করা হচ্ছে। সভায় সরকারের এই নির্যাতনমূলক আচরণের তীব্র নিন্দা জানানো হয় এবং অবিলম্বে সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও গ্রেফতারকৃতদের নি:শর্ত মুক্তি দাবি করা হয়। গ্রেফতার অভিযান বন্ধ করারও আহবান জানানো হয়।
সভা অত্যন্ত উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছে যে, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা নজীরবিহীন দ্রুততার সাথে নিষ্পন্ন করার অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। সভায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সকল মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের জোর দাবি জানানো হয়। একইসঙ্গে বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমান, দলের অন্যান্য শীর্ষ নেতৃবৃন্দসহ সারাদেশে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানানো হয়।
সম্প্রতি চাল, ডালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সকল দ্রব্যাদির মূল্য অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পেয়ে জনগণের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। সভায় অবিলম্বে দ্রব্যমূল্য জনগণের ক্রয়ক্ষমতার নাগালে আনার কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জোর দাবি জানানো হয়। সভা অত্যন্ত উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছে যে, সম্প্রতি দেশে গুম এবং খুন অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। এমনকি জাতীয় রাজনীতিবিদ, সাবেক রাষ্ট্রদূত, সাংবাদিক এবং সুশীল সমাজের কেউই গুম-খুন থেকে বাদ পড়ছে না। সরকারের বিরুদ্ধে ভিন্নমত পোষণকারী সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী, শিক্ষকদের বিরুদ্ধেও মিথ্যা মামলা দায়ের করা হচ্ছে। অতি সম্প্রতি প্রথিতযশা শিক্ষক ড. আসিফ নজরুল এবং স্বনামধন্য সাংবাদিক জনাব মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধেও মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। সভায় অবিলম্বে এই ধরণের মিথ্যা মামলা দায়ের করা থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি আহবান জানানো হয়।
বাংলাদেশে মানবাধিকার পরিস্থিতি ভয়াবহ বলে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মানবাধিকার প্রতিষ্ঠানগুলো প্রতিবেদন উপস্থাপন করছে। সভায় অবিলম্বে মিথ্যা মামলা দায়ের, গ্রেফতার, খুন, গুম, বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড বন্ধ করার জোর দাবি জানানো হয়। সভা রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনকে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে সকল দলকে সমান সুযোগ প্রদান এবং নিরাপত্তার জন্য সশস্ত্র বাহিনীকে মোতায়েন করার দাবি জানাচ্ছে। পাশাপাশি সভায় আসন্ন ঢাকা মহানগর উত্তর সিটি কর্পোশেন নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়ে।
সভায় চাল, ডাল, পিঁয়াজসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি, সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভাগুলোতে হোল্ডিং ট্যাক্স, গ্যাস, বিদ্যূৎ ও জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে কেবলমাত্র রংপুর সিটি কর্পোরেশন ব্যতিরেকে সারাদেশে প্রতিবাদ সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। পাশাপাশি বিএনপিসহ বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের, গ্রেফতার, গুম-খুন ও নির্যাতন-নিপীড়ণের বিরুদ্ধেও প্রতিবাদ জানাতে কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ