ঢাকা, মঙ্গলবার 12 December 2017, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ঝালকাঠি পল্লি বিদ্যুতের ১৪ টি ট্রান্সফরমার চুরি ॥ থানায় মামলা ॥ দুটি তদন্ত কমিটি

ঝালকাঠি সংবাদদাতা : ঝালকাঠি পল্লি বিদ্যুতের সদর দপ্তর থেকে ১২ লাখ টাকা মূল্যের ১৪টি ট্রান্সফরমার চুরির ঘটনায় নলছিটি থানায় মামলা করেছে কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় বিভাগীয় দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির সদস্যরা ইতিমধ্যে মধ্যে তদন্ত কাজ শুরু করেছেন। ঝালকাঠি পল্লি বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ জানায়, বছরের শুরু থেকে বিভিন্ন সময় খুলনা থেকে বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার আনা হয় ঝালকাঠিতে। জেলার চারটি উপজেলা ও ইউনিয়নে ট্রান্সফরমার বিকল হয়ে গেলে দ্রুততম সময়ের মধ্যে এগুলো প্রতিস্থাপন করা হয়। খুলনা থেকে আনা ট্রান্সফরমারগুলো ঝালকাঠি পল্লি বিদ্যুৎ সদর দপ্তরের চত্বরে স্টোর কিপারের দায়িত্বে রাখা হয়। দুর্বৃত্তরা বিভিন্ন সময় সেখান থেকে ১৪টি ট্রান্সফরমার চুরি করে নেয়। ট্রান্সফরমার উধাও হওয়ার বিষয়টি গত ২৭ নবেম্বর স্টোর কিপারের নজরে আসে। তিনি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানালে ২৮ নবেম্বর নলছিটি থানায় ঝালকাঠি পল্লি বিদ্যুতের এজিএম (প্রশাসন) ইসমত আরা সিনহা বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। পাশাপাশি ওই দিন দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এদিকে খবর পেয়ে সকালে বাংলাদেশ পল্লি বিদ্যুতায়ন বোর্ডের পরিচালক (অর্থ) মো. শাহ আলম ঝালকাঠি পল্লি বিদ্যুৎ সদর দপ্তরে আসেন। তিনি সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ বিষয়ে তদন্ত করেন। কী কারণে এবং কারা এই ট্রান্সফরমারগুলো চুরি করেছে, এ ব্যাপারে তদন্ত করা হচ্ছে। একটি তদন্ত কমিটির প্রধান সদর উপজেলা আনছার ভিডিপি কর্মকর্তা আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘আমাদের সদস্যরা ঝালকাঠি পল্লি বিদ্যুৎ সদর দপ্তরে নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে। কারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তা উদ্ঘাটনের জন্য তদন্ত চলছে। বাংলাদেশ পল্লি বিদ্যুতায়ন বোর্ডের পরিচালক (অর্থ) মো. শাহ আলম বলেন, ‘বিষয়টি জানার জন্য ঘটনাস্থলে আমাকে পাঠানো হয়েছে। আমি এখানকার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে কথা বলেছি। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ